More

    পুজোর আগে সুখবর! ঐতিহাসিক পর্যটনস্থল হিসেবে উদ্বোধন চন্দ্রকোনার ফাঁসিডাঙা

    spot_img

    Must Read

    পুজোর প্রাক্কালে পশ্চিম মেদিনীপুরবাসীর জন্য সুখবর। ঐতিহাসিক পর্যটনস্থল হিসেবে উদ্বোধন করা হল চন্দ্রকোনার ফাঁসিডাঙার। শুক্রবার সন্ধ্যায় এই উদ্বোধন করলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসক রশ্মি কমল।

    কর্নগড়, মোগলমারী প্রভৃতি একাধিক ঐতিহাসিক পর্যটনস্থলের সূচীতে নতুন সংযোজন হল পশ্চিম মেদিনীপুরে। ঐতিহাসিক সূত্র অনুযায়ী, ভারতীয় স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রথম রাজনৈতিক বন্দিনী রানী শিরোমনির নেতৃত্বে সংঘটিত হয় উঠেছিল দ্বিতীয় চুয়াড় বিদ্রোহ। যা কৃষক বিদ্রোহের অন্যতম নিদর্শন। ১৭৯৯ সালে ইংরেজদের হাতে ধরা পড়েন রানী। তবুও স্তব্ধ হয়নি বিদ্রোহ। পরবর্তীতে সংঘটিত হয় বাগরী নায়েক বিদ্রোহ বা পাইক বিদ্রোহ। গড়বেতার রাজা ছত্র সিংহের পাইক সর্দার অচল সিংহের নেতৃত্বে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ছড়িয়ে পড়ে পশ্চিমাঞ্চলের আদি জনজাতি তথা লোধা, শবর, সাঁওতাল, কোল, মুন্ডা, ভূমিজ, কুড়মি, বর্গ ক্ষত্রিয়দের মাধ্যমে।

    ১৮১৫ সালে সেই বিদ্রোহ দমন করতে চার্লস রিচার্ড ও হেনরি নামে কোম্পানির দুই সেনাধ্যক্ষ চন্দ্রকোনার বসনছড়া অঞ্চলে ডেরা বাঁধেন ও অস্থায়ী বিচারালয় স্থাপন করেন। নায়েক বিদ্রোহের ১৪ জন নেতাকে সেই সময় ফাঁসি দেওয়া হয় ফাঁসি মঞ্চে।

    সেই ফাঁসি মঞ্চ, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও ঐতিহাসিক নির্মম ঘটনাকে জনমানসে পৌঁছে দিতে ফাঁসিডাঙাকে গড়ে তোলা হয়েছে পর্যটনস্থল হিসেবে। ৭০ – ৮০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সংস্কারের সাথে গড়ে তোলা হয়েছে পার্কও। শুক্রবার উদ্বোধন কালে উপস্থিত ছিলেন একাধিক প্রশাসনিক ব্যক্তি ঘাটালের মহকুমা শাসক সুমন বিশ্বাস, চন্দ্রকোনা ২ ব্লকের বিডিও অমিত ঘোষ প্রমুখ।

    - Advertisement -

    Latest News

    চর্ম রোগ দাদ থেকে মুক্তির অনবদ্য উপায়

    দাদ একটি চর্মরোগ। অতি পরিচিত একটি ফাঙ্গাল ইনফেকশন বা সংক্রমণ এটি। শরীরের বিভিন্ন স্থানে যেমন- হাত, পা, পিঠ, পায়ের...
    - Advertisement -

    More Articles Like This

    - Advertisement -