প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
ভোটযুদ্ধজেলারাজনীতি

নির্বাচনে TMC না BJP কার প্রাধান্য বেশি, এক নজরে Purulia-র ভোট চিত্র

নির্বাচনে তৃণমূল না বিজেপি কার প্রাধান্য বেশি, এক নজরে পুরুলিয়ার ভোট চিত্র

GNE NEWS DESK: পুরুলিয়ার(Purulia) মোট বিধানসভা আসন সংখ্যা ৯ টি। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জঙ্গলমহলের এই জেলায় তৃণমূল ৭টি ও কংগ্রেস ২টি আসন পেয়েছিল। কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রথম পরিলক্ষিত হয় গেরুয়া প্রভাব। গত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো পুরুলিয়া আসনে জয়লাভ করেন। লোকসভা নির্বাচনে প্রাপ্ত ভোটের বিচারে একমাত্র মানবাজার বিধানসভা কেন্দ্র ছাড়া সব গুলোতেই এগিয়ে বিজেপি(BJP)। ফলে আসন্ন নির্বাচনে প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বীতার সম্মুখীন হতে চলেছে শাসক দল তৃণমূল(TMC)।

পুরুলিয়ার ৯টি বিধানসভা কেন্দ্র সম্পর্কে বিস্তারিত –

মানবাজার: গত দু’বারের বিধায়ক রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণিকল্যাণ দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী সন্ধ্যারানি টুডু তৃণমূলের প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থী গৌরী সিং সর্দার।

বান্দোয়ান: তৃণমূলের বিদায়ী বিধায়ক রাজীবলোচন সরেন এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থী পারসী মুর্মু।

পুরুলিয়া: কংগ্রেস বিধায়ক সুদীপ মুখোপাধ্যায় বর্তমানে বিজেপিতে এবং এই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী। এই আসনে এবার কংগ্রেসের প্রার্থী প্রদেশ কংগ্রেসের নেতা শহর পুরুলিয়ায় পরিচিত মুখ পার্থপ্রতীম বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল প্রার্থী। স্বাভাবিক ভাবেই এই আসনে লড়াই বেশ কঠিন হতে চলেছে।

জয়পুর: এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী উজ্জ্বল কুমারের মনোনয়ন বাতিল হয়ে গিয়েছিল।সম্প্রতি হাইকোর্ট মনোনয়ন বৈধ হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। অন্যদিকে তৃণমূলের সঙ্গ ত্যাগ করে জয়পুর ব্লক যুব তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি দিব্যজ্যোতি সিং দে এখানে নির্দল প্রার্থী l অন্যদিকে এই আসনে সংযুক্ত মোর্চার জোট নিয়ে প্রশ্ন চিহ্ন। জোট থেকে ফরওয়ার্ড ব্লকের প্রাক্তন সাংসদ ধীরেন্দ্রনাথ মাহাতোকে প্রার্থী করা হলেও কংগ্রেস এই কেন্দ্রে ঝালদা দু’নম্বর ব্লক সভাপতি তথা শিক্ষক ফনি কুমারকে প্রার্থী করেছে। এখানকার বিজেপি প্রার্থী মুকুলপন্থী ফরওয়ার্ড ব্লক থেকে আসা প্রাক্তন সাংসদ নরহরি মাহাতো। কিন্তু গোঁজ প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়িয়েছেন জেলা পরিষদ ১৮ মন্ডলের সভাপতি নেপাল চন্দ্র মাহাতো।  ফলে এই আসনে জয়ের হিসেব বেশ জটিল।

বলরামপুর : দু’বারের বিধায়ক তথা রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন বিভাগের মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো পুনরায় এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থী বাণেশ্বর মাহাতো।

বাঘমুন্ডি : একদা কংগ্রেস ‘গড়’ বাঘমুন্ডিতে এই কেন্দ্রের দু’বারের কংগ্রেস বিধায়ক, জেলা কংগ্রেস সভাপতি বিদায়ী বিধায়ক নেপাল মাহাতো পুনরায় কংগ্রেসের টিকিটে জোট প্রার্থী। কিন্তু গত লোকসভা ভোটে এই কেন্দ্রেই বিজেপির ব্যবধান সবচেয়ে বেশি ছিল। তা সত্ত্বেও আসনটি বিজেপি জোট সঙ্গী আজসুকে ছেড়ে দেওয়ায় বিজেপির দলীয় ক্ষোভ-বিক্ষোভ সামনে এসেছে। প্রকাশ্যে বিক্ষোভও দেখানো হয়েছে। গত লোকসভা ভোটে তৃণমূল এখানে ছিল দ্বিতীয় স্থানে। এই কেন্দ্রে তৃণমূল সুশান্ত মাহাতো। ফলে নির্বাচনে এখানে ত্রিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা।

কাশীপুর : এই কেন্দ্রে তৃণমূলের দু’বারের বিধায়ক স্বপন বেলথরিয়া এবারও তৃণমূল প্রার্থী। তবে এখানে তৃণমূল বিরোধী হাওয়া প্রবল। বিজেপি প্রার্থী কমলাকান্ত হাঁসদা।

রঘুনাথপুর : তৃণমূল প্রার্থী হাজারী বাউড়ি। বিজেপি প্রার্থী বিবেকানন্দ বাউরি।

পাড়া : এই কেন্দ্রের বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক উমাপদ বাউরি এবারেও তৃণমূল প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থী নাদিয়া চাঁদ বাউরি।

একই রকমের খবর