আন্তর্জাতিকCorona Virus

ডিসেম্বরেই ভারতে ২০০ থেকে ৩০০ মিলিয়ন কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ডোজ! জানালেন সেরাম

GNE NEWS DESK: দেশে ক্রমশঃ বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। আর এই পরিস্থিতিতে কবে ভ্যাকসিন এসে পৌঁছবে দেশের মানুষের হাতে সেই আশায় মানুষ বসে রয়েছে। কিন্তু ভ্যাক্সিন আসতে আর খুব বেশি দেরি নেই, এমনটাই দাবি করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট।

২০২১-এর মার্চ মাসের মধ্যেই ভ্যাক্সিন বাজারে এসে যাবে,সংস্থার এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ড. সুরেশ যাদব ঠিক এমনটাই জানিয়েছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, ডিসেম্বরের মধ্যেই ২০০ থেকে ৩০০ মিলিয়ন ভ্যাক্সিনের ডোজ পাওয়া যাবে। ডিজিসিআই একবার অনুমোদন দিলেই ভ্যাক্সিন সম্পূর্ণ রেডি হয়ে যাবে।

ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ রাখা হয়েছিল কয়েক সপ্তাহ, এমনটাই জানিয়েছেন সেরামের কর্ণধার। আর সময়ও বেশি নেওয়া হয়েছিল বেশি স্বচ্ছতা রাখার জন্য। ডিসেম্বরেই ডিজিসিআই-কে দেওয়া হবে ফেজ থ্রি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ডেটা। তারপর এক মাসের মধ্যে এমার্জেন্সি লাইসেন্স দেওয়া হবে যদি ডিজিসিআই সন্তুষ্ট হয়। এরপর যাবে হু এর কাছে। এরপর যাতে সবাইকে সমানভাবে ভ্যাক্সিন দেওয়া যায় তারজন্য আন্তর্জাতিক সংগঠন Gavi ওই ভ্যাক্সিন কিনে নেবে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনও মনে করছেন, আগামী বছরের শুরুতেই নোভেল করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দেশের বাজারে এসে যাবে। ইতিমধ্যে করোনার ভ্যাকসিন বানাচ্ছে আমেরিকা, ব্রিটেন-সহ বিশ্বের প্রথম সারির একাধিক দেশ। ভারতেও কাজ চলছে। করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করছে ভারত বায়োটেক, জাইডাস ক্যাডিলা-সহ বেশ কয়েকটি সংস্থা। পুণের সেরাম ইন্সটিটিউট অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন ভারতে তৈরি করছে।

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel