প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
আন্তর্জাতিক

ইসলামী সংগঠনের ফতোয়া উপেক্ষা করে হিন্দু মন্দিরের পুনরায় নির্মাণ শুরু করল পাকিস্তান

GNE NEWS DESK:পাকিস্তানে ইসলামী সংগঠনের বিরোধীতায় বন্ধ হয়ে যাওয়া মন্দিরটি ফের নির্মাণের অনুমতি দিয়েছে দেশটির রাষ্ট্র পরিচালিত আলেমদের কাউন্সিল।

স্বাধীনতার পর পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে প্রথম মন্দির নির্মাণের অনুমতি দিয়েছিল পাকিস্তান সরকার। কিন্তু কিন্তু ইসলামী সংগঠনের ফতোয়া জারির পর মন্দির নির্মাণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

ইসলামী বিষয়ে পরামর্শ প্রদানে নিযুক্ত ওই কাউন্সিল বলেছে, হিন্দুদের জন্য প্রার্থনার স্থান নির্মাণের অনুমতি রয়েছে ইসলামে। পাকিস্তানের হিন্দু নেতা ও সংসদ সদস্য লাল মালহি এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।

১০ লাখের বেশি জনসংখ্যার শহরে প্রায় ৩ হাজার হিন্দু বাস করে। ইসলামাবাদে হিন্দুদের কোনো মন্দির নেই।

কাউন্সিল অফ ইসলামিক আইডোলজি এক বিবৃতিতে বলেছে, পাকিস্তানের হিন্দুরা তাদের মৃত স্বজনদের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের সাংবিধানিক অধিকার ছিল।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, এই অধিকারের আলোকে ইসলামাবাদে হিন্দু সম্প্রদায়ের পক্ষে উপযুক্ত স্থান থাকার অনুমতি রয়েছে যেখানে তারা ধর্মীয় নির্দেশনা অনুসারে মৃত ব্যক্তিদের শেষকৃত্য করতে পারবেন। এছাড়া কাউন্সিল সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর জন্য বিবাহ ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানের জন্য কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণেরও অনুমতি দিয়েছে।

১৯৪৭ সালে পাকিস্তান সৃষ্টির পর থেকে ইসলামাবাদে কোনো হিন্দু মন্দির গড়ে ওঠেনি।

গত জুন মাসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কট্টরপন্থী ইসলামী গোষ্ঠীর বিরোধিতার মুখে এই মন্দির নির্মাণের কাজ স্থগিত করে দেন। কট্টরপন্থী ইসলামী গোষ্ঠীগুলোর বক্তব্য মন্দির নির্মাণ ইসলাম-বিরুদ্ধ।

সেসময় তাদের কেউ কেউ সরাসরি মন্দির নির্মাণে বাধা প্রদান করার চেষ্টা করে, যা নিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এরপরই সরকার এক্ষেত্রে মন্দির নির্মাণে অর্থ ব্যয় করতে পারবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত মাওলানাদের ওই পর্ষদের ওপর ছেড়ে দেন ইমরান খান। তার আগে তিনি ৬ লাখ ডলার ব্যয়ে মন্দিরটি নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তবে মাওলানাদের কাছ থেকে এই সিদ্ধান্ত আসার পর এখন কি তিনি মন্দির নির্মাণে অর্থবরাদ্দ করবেন কিনা সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

Related Articles