আন্তর্জাতিক

লাহোরের রাস্তায় মোদি ও অভিনন্দন বর্তমানের পোস্টার, শোরগোল পাকিস্তানের রাজনৈতিক অলিন্দে

GNE NEWS DESK: সাম্প্রতিক পাকিস্তানের বিতর্কিত রাজনৈতিক আবহের মধ্যেই লাহোরের রাস্তায় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের ছবি সম্বলিত পোস্টারের দেখা মিলল। মুহূর্তে সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হয়ে যায়। যা পাকিস্তানের অন্তর্বর্তী ও আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে পুনরায় শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

কিছুদিন আগেই অভিনন্দন বর্তমানের মুক্তি প্রসঙ্গে পাকিস্তান পার্লামেন্টে পাকিস্তানের সেনাপ্রধানকে নিয়ে মুসলিম লীগ – নওয়াজের নেতা সর্দার আয়াজ সাদিকের বিতর্কিত মন্তব্যের পরেই তাঁর নিজের নির্বাচনী এলাকায় তাঁর নিজের ছবি সহ এই ধরনের পোস্টার রাজনৈতিক আবহ আরও উত্তপ্ত করে তুলেছে। এহেন পোস্টার দেখে তাঁকে “বিশ্বাসঘাতক” হিসাবে অভিহিত করে পাকিস্তানে ক্ষোভ ও রাজনৈতিক আক্রমণ শুরু হয়েছে।

সাম্প্রতিক অতীতে পিএমএল-এন নেতা সংসদে বলেন যে, আর্মি চিফ জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া ঘেমে উঠেছিলেন এবং তাঁর ‘পা কাঁপছিল’ যখন বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি তাঁকে জানান পাকিস্তান অভিনন্দনকে মুক্তি না দিলে ভারত রাত ১০ টার মধ্যে আক্রমণ করতে পারে।
সাদিকের এই মন্তব্যে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র জাহিদ হাফিজ চৌধুরী বলেছেন, ‘উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে মুক্তি দেওয়ার বিষয়ে পাকিস্তানের উপর কোনও চাপ ছিল না।’
সংবাদ সংস্থা পিটিআই কে তিনি জানান, “শান্তিপূর্ণ অবস্থানের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের জন্য পাকিস্তান সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, যা আন্তর্জাতিক ভাবে প্রশংসিত হয়েছিল।”

গতবছর পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার প্রতিশোধ নিতে ভারতীয় যুদ্ধবিমান পাকিস্তানের বালাকোটে জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে এয়ারস্ট্রাইক করে। একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করে দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা। যদিও পাকিস্তান সেনা ও সরকার এই এয়ারস্ট্রাইকের ঘটনা সম্পূর্ণ অস্বীকার করে। কিন্তু বালাকোটে ভারতের এয়ারস্ট্রাইকের ঠিক পরের দিনই আকাশপথে ভারতে হামলার চেষ্টা চালায় পাকিস্তান। ভারতীয় বায়ুসেনা প্রতিরোধ করে। ধাওয়া করে পাক এফ-১৬ বিমান গুলি করে নামান ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। এই এরিয়াল ডগফাইটে তাঁর বিমান পাক অধিকৃত কাশ্মীরে গিয়ে পড়ে এবং তিনি পাকসেনার হাতে বন্দি হন। ভারত ও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পাকিস্তান তাঁকে মুক্তি দেয়।

এই ঘটনা ভারত ও পাকিস্তানের কূটনৈতিক ও অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে বিস্তর প্রভাব ফেলেছিল। এখন সেই ঘটনা সম্পর্কিত সাম্প্রতিক ঘটনাবলীকে সামনে রেখে ভারত কূটনৈতিক ভাবে পাকিস্তানকে যে পুনরায় কোনঠাসা করতে চাইবে তা বলাই বাহুল্য।

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel