জেলা

দুই সংস্থার উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ কনকাবতীতে

মেদিনীপুর : করোনা পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হওয়ার প্রায় প্রথম দিকে থেকেই ত্রাণ কার্য্য চালাচ্ছে মেদিনীপুর শহরের তুলনামূলক ভাবে বয়সে নবীন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মাণিকলাল দাস মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন। রবিবার সকালে সংগঠনের উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গুড়গুড়িপাল থানার কনকাবতী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়।

এখানে মোট ৮০ টি পরিবারের হাতে আলু, পেঁয়াজ, সোয়াবিন, ডিম সহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য তুলে দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সম্পাদক ডঃ নকুল মন্ডল, সঞ্জয় মান্না, স্বস্তিক শাসমল সহ অন্যান্যরা।

পাশাপাশি ত্রাণ নিয়ে লকডাউনে কর্মহীন, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ালো এবিপিটিএ। নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির (এবিপিটিএ) নেতৃত্বে এগিয়ে এলেন বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক -শিক্ষিকাবৃন্দ। রবিবার সকালে সংগঠনের মেদিনীপু সদর গ্রামীন চক্রের উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মেদিনীপুর সদর ব্লকের গুড়গুড়িপাল থানার অন্তর্গত কনকাবতী গ্রামে। কনকাবতী গ্রামের ১৩০ টি কর্মহীন, দুঃস্থ ও অসহায় পরিবারের হাতে এবিপিটিএ”র পক্ষ থেকে আলু, পেঁয়াজ, মুড়ি, মুসুর ডাল, সরিষার তেল সহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ত্রাণ সামগ্রী হিসেবে তুলে দেওয়া দেন। গুড়গুড়িপাল থানার সহযোগিতায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ত্রাণ বন্টন প্রক্রিয়াটি সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হয়। নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির মেদিনীপুর সদর গ্রামীণ চক্রের সংগঠনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদর গ্রামীণ চক্রের সম্পাদক দেবজিৎ মিশ্র, শিক্ষক উদয় বেরা, সুজিত পাত্র, নিরঞ্জন মাঝি, হরমোহন মাহাতো প্রমুখ। ত্রাণ বিতরণে যোগ দিতে এসে সমিতির সম্পাদক দেবজিৎ বাবু বলেন- “কনকাবতী গ্রামের প্রায় ১৩০ টি দুঃস্থ পরিবারের হাতে আমরা অল্প কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস তুলে দিলাম, সাধারণ খেটে খাওয়া এই পরিবার গুলোতে নুন আনতে পান্তা ফুরিয়ে যায়, লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষগুলোর কাছে কিছুটা সাহায্য পোঁছে দিতে পেরে আমরা আনন্দিত।” তিনি বলেন, কোনো দুঃস্থ ও অসহায় পরিবার যদি এই দুর্দিনে প্রয়োজনীয় ঔষুধ কিনতে না পারে সংগঠনের সদর গ্রামীন চক্র সর্বতো ভাবে তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবে।”


Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close