জেলা

কোয়ারান্টাইন সেণ্টারে এক আদিবাসী মহিলা আবাসিককে শ্লীলতা হানি

আলিপুরদুয়ার:- কোয়ারান্টাইন সেণ্টারে এক আদিবাসী মহিলা আবাসিককে শ্লীলতা হানি করা হয়েছে এমন অভিযোগ ওঠার পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শামুকতলা থানা এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে শামুকতলা থানার তুরতুরি গ্রাম পঞ্চায়েতের সিমলাবারি এলাকার বাসিন্দা ওই আদিবাসী যুবতী কর্মসূত্রে দিল্লি থেকে গতকাল শনিবার ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কের ট্রানজিট পয়েন্টে আসেন ।

সেখান থেকে তাকে শামুকতলা থানার সেন্ট জেভিয়ার্স স্কুলে কোয়ারান্টাইন সেন্টার পাঠানো হয় । শনিবার রাত বারোটা নাগাদ তিনি কোয়ারান্টাইন সেন্টারে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাথরুমের খোঁজ করেন । সেই সময় কোয়ারান্টাইন সেন্টারের দায়িত্বে থাকা সাফাই কর্মী মিঠুন পাল তাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে বলে অভিযোগ করেন ।

সেই সময়ে তার চিৎকারে কোয়ারান্টাইন সেন্টারে থাকা পুরুষ এবং মহিলারা বের হলে মিঠুন গা ঢাকা দেন । রবিবার সকালে আদিবাসী যুবতীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শামুকতলা থানার পুলিশ মিঠুন পালকে কার্জীপাড়া এলাকায় তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে ।

শামুকতলা থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার বিরাজ মুখোপাধ্যায় বলেন,” কোয়ারান্টাইন সেন্টারে থাকা সাফাই কর্মীর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মিঠুন পাল কে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার তাকে কোর্টে তোলা হবে

Tags:কোয়ারেন্টাইন সেন্টার, শ্লীলতাহানি, জলপাইগুড়ি

Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close