জেলা

ক্ষমাপ্রার্থী প্রধান শিক্ষক, নির্দেশ অমান্য করে স্কুল খোলায় তাকে শোকজ করলেন স্কুল পরিদর্শক!

Apologizing headmaster, disobeying the instructions to open the school, the school inspector protested him!

GNE NEWS DESK: সরকারি নির্দেশ অমান্য করে স্কুল খোলার অপরাধে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হল প্রধান শিক্ষককে। বুধবার পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরের হাট সরবেড়িয়া বিসি রায় স্কুলে দশম শ্রেণির পঠনপাঠন হয়। এই খবর চাউর হতেই শোরগোল পড়ে শিক্ষা দফতরে। তড়িঘড়ি স্কুল বন্ধের নির্দেশ দিয়ে প্রধান শিক্ষক বৃন্দাবন ঘটককে শো-কজ করেন স্কুল পরিদর্শক

এর জবাবে বৃহস্পতিবার প্রধান শিক্ষক বৃন্দাবনবাবু জানিয়েছেন, সরকারি নির্দেশ না থাকা সত্ত্বেও স্কুল খোলা ভুল হয়েছিল সত্যি। এমন ভুল আর যাতে না হয় তার দিকে নজর রাখবো। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে প্রত্যন্ত এলাকার স্কুলের প্রধান শিক্ষকের এমন অবস্থার জন্য অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

বুধবার দাসপুরের হাট সরবেড়িয়া বিসি রায় স্কুলে দশম শ্রেণির পঠনপাঠন হয়। স্কুলের পোশাক পরে ক্লাস করে জনা ত্রিশেক পড়ুয়া। এই নিয়ে শোরগোল শুরু হলে প্রধান শিক্ষক জানান, ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের অনুরোধেই স্কুল খোলা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব মেনে শুধু দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের কোচিং ক্লাস নেওয়া হচ্ছিল।
এক অভিভাবকের বক্তব্য সামনের বছর তার মেয়ে মাধ্যমিক দেবে। এইসব গ্রামে অনলাইনে ক্লাস হয়না। টাকার অভাবে টিউশনও দিতে পারেননি। অনেকেরই এই অবস্থা। সে কারণে সবাই মিলে অনুরোধ করায় স্কুল খোলা হয়েছিল। কিন্তু প্রধান শিক্ষকের এমন অবস্থা হবে জানলে কখনো এরকম সিদ্ধান্ত তারা নিতেননা।

প্রসঙ্গত, ৩১ শে আগস্ট পর্যন্ত রাজ্যের সব স্কুল কলেজ বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। তারপরও খোলা হবে এরকম আশা খুবই ক্ষীণ।
Tags:ক্ষমাপ্রার্থী প্রধান শিক্ষক, নির্দেশ অমান্য করে স্কুল খোলায় শোকজ করলেন স্কুল পরিদর্শক

Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel
Close