নেশাগ্রস্ত বাবার সঙ্গে বচসার জেরে প্রাণ গেল পুত্রের

The son died due to an argument with the intoxicated father

ঝাড়গ্রাম: প্রতিনিয়ত নেশার জন্য বাড়িতে লেগে থাকত অশান্তি। নেশাগ্রস্ত বাবাকে নেশা করার প্রতিবাদ জানাতেই খুন হতে হল ছেলেকে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর-১ নম্বর ব্লকের গোপীবল্লভপুর পাঁচ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের পড়াশিয়া গ্রামের ঘটনা।

এই ঘটনার পরে শোকের ছায়া নেমেছে পড়াশিয়া গ্রামে। গ্রামবাসীদের থেকে জানা যায়, মৃত যুবকের নাম পরেশ নায়েক বয়স ২৮। পরেশ ওড়িশার একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতো। লকডাউনের জেরে বাড়ি ফিরেছিলেন পরেশ। শনিবার বিকেলে বাড়িতে একাই ছিলেন পরশে। সেই সময় পরশের মা মঞ্জুরী নায়েক চাষের কাজ করার জন্য জমিতে গিয়েছিল এবং পরশের স্ত্রী বীনাপানী নায়েক পাশের গ্রামে তার বাপের বাড়ি গিয়েছিল। ঠিক সেই সময় নেশাগ্রস্ত হয়ে বাড়ীতে আসেন তাঁর বাবা ধনঞ্জয় নায়েক (৬৫)। পরশের বাবা পেশায় পারুটি ব্যবসায়ী। বাবার নেশা করার জন্য প্রায়ই সংসারে লেগে থাকত অশান্তি। বাবার নেশা করা নিয়ে ছেলে এবং বাবার মধ্যে তুমুল বচসা বাধে জানা যায়। সেই সময়ই পারুতি কাটার ছুরি দিয়ে তার নিজের ছেলের বাঁদিকের পাঁজরে ঢুকিয়ে দেয় বলে জানান গ্রামবাসীরা।

তারপরেই রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে যাওয়ার জন্য গাড়ি খুঁজতে যাই ওই যুবক খোদ নিজেই। পরে অবশ্য স্থানীয় যুবকরা তাঁকে গোপীবল্লভপুর সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে আসে পরেশকে। অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় গোপীবল্লভপুর সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল থেকে তাঁকে স্থানান্তর করা হয় ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতলে। গতকাল গভীর রাতেই ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে মৃত্যু হয় পরশের।

পরশের বাড়িতে স্ত্রী ও মেয়ে রয়েছে এবং মা ও রয়েছে । এই ঘটনার পর থেকেই পরশের বাবা ধনঞ্জয় নায়েক পলাতক। যদিও পরিবার সূত্রে এখনো পর্যন্ত গোপীবল্লভপুর থানায় লিখিতভাবে কোন অভিযোগ জানানো হয়নি। 

গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ জানায় ঘটনার খবর পেয়েছি কিন্তু এই বিষয়ে থানায় এখনও পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ হয়নি।
[qws]Tags:নেশাগ্রস্ত বাবার সঙ্গে বচসায় প্রাণ গেল পুত্রের

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel