ঝাড়গ্রামে সিভিক ভলেন্টিয়ারকে মারধরের ঘটনায় অভিযুক্ত তিন জনকে ৪ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ

Three accused in beating of civic volunteer in Jhargram remanded in police custody for 4 days

ঝাড়গ্রাম: ডিউটি সেরে বাড়ি যাবার পথে আধ ঘণ্টার ব্যবধানে দুষ্কৃতীদের হাতে রক্তাক্ত ভাবে আক্রান্ত হলেন ঝাড়গ্রাম থানার ২ সিভিক ভলেন্টিয়ার(Two civic volunteer)। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাত্রি দশটার পর ঝাড়গ্রাম(Jhargram) শহর লাগোয়া পানিশোলের জঙ্গলে।

আক্রান্ত সিভিক ভলেন্টিয়ারদের কাছ থেকে জানা যায়। রবিবার ডিউটি সেরে বাঁধগোড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের শুষনিগেড়িয়া গ্রামে যাচ্ছিলেন গৌতম কপাট নামে একজন সিভিক ভলেন্টিয়ার। ঝাড়গ্রাম শহরের পুরাতন ঝাড়গ্রাম থেকে মানিকপাড়া যাওয়ার রাস্তায় ঝাড়গ্রাম শহর থেকে মাত্র দুকিলোমিটার যেতেই দুষ্কৃতীদের হাতে পড়তে হয় ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারকে। 

রাতের অন্ধকারে হাতে বড় বড় বাঁশের লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিল দুজন তারা হঠাৎ করে বাঁশের লাঠি দিয়ে তাঁকে মারধর শুরু করে। কোনোক্রমে নিজের মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায় ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার। এই ঘটনার প্রায় 30 মিনিটের ব্যবধানে বাদল সরেন নামে এক সিভিক ভলেন্টিয়ার ডিউটি শেষ করে ওই রাস্তা দিয়েই বাড়ি ফিরছিলেন।  তার বাড়ি টিয়াকাটি গ্রামে। জানা যায় ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার কে গাড়ি থামিয়ে দুজনে বাঁশের লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। ভেঙে ফেলা হয় সিভিক ভলেন্টিয়ার এর মোটরসাইকেলটি।

ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারের মোবাইল এবং সমস্ত টাকা লুট করে চম্পট দেয় ওই দুষ্কৃতীরা। ঘটনার খবর পেয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায় , গতকাল রাত্রে তিনজনকে ঘটনাস্থলের পাশের গ্রাম কালিনগর এলাকা থেকে গ্রেফতার করে ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশ। সোমবার সকালে আক্রান্ত সিভিক ভলেন্টিয়ার গৌতম কপাট  ঘটনাস্থলে গিয়ে বর্ণনা করে দেখান ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশকে। সিভিক ভলেন্টিয়ার গৌতম কপাট বলেন, ঝাড়গ্রাম একলব্য বিদ্যালয়ে আমার ডিউটি ছিল। প্রায় রাত দশটা নাগাদ ডিউটি শেষ করে আমি বাড়ি ফিরছিলাম। হঠাৎ করে দেখি পানিশোলের গোদরাপোল এর কাছে দুই ব্যক্তি রাস্তার দুদিকে দুটি বড় বাঁশের লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। আমি কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমাকে মারতে শুরু করে ওই অবস্থায় আমি জোরে গাড়ি চালিয়ে কোনোক্রমে বাড়ি পৌছায় ।

এদিন তিনজন অভিযুক্তকে ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হলে ঝাড়গ্রাম আদালতের বিচারক ওই তিনজনকে চার দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন।

কি কারনে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে তা নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও পুলিশের প্রাথমিক অনুমান টাকা-পয়সার লুট এবং ছিনতাইয়ের জন্যই এই কাজ ঘটানো হয়েছে। 

 [qws]Tags: সিভিক ভলেন্টিয়ারকে মারধর, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার, ৪ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel