১৯৫০ সালের তৈরি কথাটা সিড্যুল্ড ট্রাইব তালিকা বাতিলের দাবিতে কালা দিবস পালন করল কুড়মিরা

Kurmira observed Black Day demanding the abolition of the 1950 Sidul Tribe

GNE NEWS DESK: কুড়মি(মাহাত) জাতি হল ভারতবর্ষের একটি আদিম জনজাতি। ভারতবর্ষের বিভিন্ন রাজ্যে বসবাস করে এই কুড়মি জনজাতির মানুষ। এরাজ্যে যাদের সংখ্যা প্রায় পঞ্চাশ লক্ষ্যাধিক। ১৯৫০ সালের তৈরি সিড্যুল্ড ট্রাইব তালিকা বাতিলের দাবিতে আজ ৬ সেপ্টেম্বর কালা দিবস পালন করলো কুড়মিরা।

দীর্ঘদিন ধরেই তারা আন্দোলন করে আসছে নিজেদের SCHEDULE TRIBE তালিকায় পুনঃঅন্তর্ভুক্তির জন্য। তাদের দাবি কুড়মিরা ১৮৭২ সাল থেকেই অ্যবঅরিজিনাল ট্রাইব হিসাবে উল্লেখিত।

ব্রিটিশ শাসিত স্বরাষ্ট্র বিভাগ থেকে ১৯১৩ সালের ২রা মে প্রকাশিত হয় ৫৫০ নম্বর নোটিফিকেশন। সেই নোটিফিকেশনে যে ১৩টা জাতিকে ট্রাইব হিসাবে দেখানো হয়েছিল তার মধ্যে কুড়মি ছিল। কিন্তু স্বাধীন ভারতবর্ষে ১৯৫০ সালে যে Schedule Cast & Schedule Tribe তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। আশ্চর্যজনক ভাবে সেই তালিকায় একমাত্র “কুড়মি” জাতি বাদ পড়ে। তাই এই সরকারি বঞ্চনার অবসানের লক্ষ্যে এখনো পর্যন্ত তাঁরা আন্দোলন করে যাচ্ছে।

কিন্তু আর আশ্চর্যের বিষয় হলো যে “কুড়মি” (kudimai)জনগোষ্ঠীকে SCHEDULE TRIBE তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার জন্য পার্লামেন্টে কোন বিল বা কোন অর্ডিন্যান্স জারি করা হয়নি। তাই ভূমি রাজস্ব বিভাগের কাগজ পত্র, বিভিন্ন পাঠ্য বই এবং সর্বোপরি জমিজমা সংক্রান্ত রায়ে কুড়মিদের SCHEDULE TRIBE বলে উল্লেখিত হয়েছে।

এডভোকেট সুনীল কুমার মাহাতো এর দায়ের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্র সরকারের মিনিস্ট্রি অফ ট্রাইবাল এফেয়ার্স থেকে ২০১৪ সালের ৮ ই জুলাই কুড়মি জাতির নৃতাত্ত্বিক পরিচিতির বিষয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি পাঠানো হয় ভারতবর্ষের তিন রাজ্যের(পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা এবং ঝাড়খণ্ড) অনগ্রসর শ্রেণীর কল্যাণ বিভাগের সচিবের কাছে।

কিন্তু এই পদ্ধতির ধরন নিয়ে আপত্তি তুলেন কুড়মি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এই নিয়ে কুড়মি সেনার পক্ষ থেকে রবীন্দ্রনাথ মাহাত বলেন “১৯১৩ সালের তালিকাকেই ১৯৫০ সালে মান্যতা দেওয়া হয়েছে। তাহলে ওই তালিকায় থাকা কুড়মির উপর ই কেন শুধুমাত্র সমীক্ষা ?
এছাড়াও সমীক্ষার সময় প্রতিটি গ্রাম তো বাদ ই দিন প্রতিটি অঞ্চলেও সমীক্ষক দল যায়নি। এরকম ভাবে অবিচার কেন?”

কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের পক্ষ থেকে সুশীল মাহাত বলেন “১৯১৩ সালের ব্রিটিশদের তৈরি তালিকায় যদি ১৯৫০ সালে বহাল থাকবে। তাহলে কুড়মিদের আদিবাসী তালিকা থেকে বাদ দেওয়া অসাংবিধানিক। অবিলম্বে সংশোধন করে কুড়মি জাতিকে আদিবাসী তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।” এছাড়াও আদিবাসী কুড়মী সমাজের রাজ্য সভাপতি মনোরঞ্জন মাহাত বলেন “স্বাধীন ভারতবর্ষে নিজ ভূমে সাংবিধানিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। অবিলম্বে সিড্যুল্ড ট্রাইব তালিকা সংশোধন করে কুড়মি জাতিকে তালিকাভুক্ত করতে হবে।”

সারা ভারতবর্ষের বিভিন্ন এলাকায় কালা দিবস পালন করেন কুড়মিরা। কালা দিবসে ব্যাপক সাড়া পড়েছে পশ্চিমবঙ্গের জঙ্গলমহলের চার জেলা ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া বাঁকুড়া এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে।
[qws]Tags: আপডেট খবর,বাংলা খবর,করোনা আপডেট, আজকের রাশিফল, bengalinews, ভারতের খবর, আজকের খবর, আবহাওয়ার খবর,ঝাড়গ্রাম, উপকারিতা, দেশের খবর, আজকের নিউজ,

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel