ভুয়ো ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে শেয়ার করার জন্য গ্রেপ্তার হলেন বিজেপি যুব মোর্চার সম্পাদক বাপ্পা চ্যাটার্জী!

BJP Youth Morcha secretary Bappa Chatterjee has been arrested for posting fake photos on Facebook and sharing them.

GNE NEWS DESK: বেশ কিছুদিন ধরেই পুলিশ প্রচার চালাচ্ছে যে কোন সোশ্যাল মিডিয়াতে ভুয়া পোস্ট না ছড়ানোর জন্য এটি একটি সাইবার ক্রাইম এবং এর জন্য আপনি গ্রেপ্তার ও হতে পারেন।এর মধ্যেই আসানসোল পুরনিগমের ভুয়ো সাইনবোর্ডের ছবি পোস্ট করে গ্রেফতার হলেন বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক বাপ্পা চ্যাটার্জি (bappa chatterjee)। এই গ্রেপ্তারির প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ (soumitra khan) তার দলবল ও সমর্থকদের নিয়ে। পুলিশ কমিশনার এর বাড়ির সামনে ধরণা দিয়েছিলেন তারা। এরপর এদের সকলকেও গ্রেফতার করে নেওয়া হয়।

একটি ছবি সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে শেয়ার করেছিলেন যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক বাপ্পা চ্যাটার্জি। সেখানে তিনি দেখান যে আসানসোল পুরনিগমের সাইন বোর্ডের একাংশের ছবিতে হিন্দি, উর্দু এবং ইংরেজি ভাষাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। বাংলা ভাষা সেখানে উপেক্ষিত। এর প্রতিবাদে ছবিটি শেয়ার করেন তিনি।

কিন্তু পুলিশ গিয়ে দেখে পুরনিগমের অফিসের বোর্ডে বাংলা রয়েছে। কিন্তু উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ছবির একাংশ ব্যবহার করায় বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। শুক্রবার রাতেই বাপ্পা চ্যাটার্জিকে ভুয়ো ছবি শেয়ার করার অভিযোগে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ঝড়ের গতিতে এই ছবি ফেসবুকে বিভিন্ন পেজে শেয়ার হতে শুরু করে । বিজেপির যুব মোর্চার নেতা এবং অন্যান্য নেতারা এই নিয়ে প্রতিবাদের ঝড় তোলেন। তারা তৃণমূলের নামে অভিযোগ আনতে থাকেন যে তৃণমূল আসলে বাংলা সংস্কৃতি বিরোধী। তা না হলে কোন একটি পুরো নিগমের সাইনবোর্ডে কেন বাংলা ভাষাকে উপেক্ষা করা হয়েছে?

এদিকে পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করতে গিয়ে দেখতে পান সাইনবোর্ডে বাংলা ভাষা আছে ।অর্থাৎ কেবল সাইনবোর্ডের একটি অংশের ছবি তুলে জনসাধারণের মনের ভুল ধারণা প্রচার করার জন্য এরকম কাজ করা হচ্ছিল। এর পরেই বাপ্পা চ্যাটার্জী কে গ্রেপ্তার করা হয়। পুরো নিগমের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বিজেপির আইটি সেল থেকে এই কাজটি করা হয়েছে। যাতে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মানুষের মনে খারাপ ধারণা তৈরি হয়। কিন্তু তৃণমূল কখনোই বাংলা সংস্কৃতি বিরোধী নয়। তারা সবসময় সব জায়গায় বাংলা ভাষাকে প্রাধান্য দিয়ে এসেছে বলে তিনি জানান।

তবে বন্ডে সাইন করার পর বিনিময় যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক বাপ্পা চ্যাটার্জি কে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এরপর পশ্চিমবঙ্গের পুলিশের ফেসবুক পেজ থেকে ভুল ছবিটি এবং আসল ছবিটি দুটোকেই পোস্ট করা হয়। করে বলা হয় যে জনসাধারনের মনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য এই কাজ করানো হচ্ছিল। ওই নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং তার সঙ্গে সঙ্গে যারা এই ছবি শেয়ার করেছেন তাদের সকলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।রাজ্য পুলিশের তরফে নেটিজেনদের কাছে আবেদন, ”দয়া করে ভুয়ো বা বিভ্রান্তিকর বিষয় পোস্ট/ফরওয়ার্ড করবেন না।”

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগে দুর্গাপূজা সংক্রান্ত কিছু বিধিনিষেধ সম্বলিত একটি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার হয়েছিল। যিনি এ পোস্টটি করেছেন তাকে গ্রেফতার করা হয়। কারণ এই ধরনের কোন নির্দেশিকা এখনো রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দেওয়াই হয়নি ।তার পরপরই আবার এই ঘটনাটি ঘটলো যা সত্যিই আশ্চর্য জনক বলে জানা গেছে। পুলিশ জানিয়েছে এই ধরনের ঘটনা জেনেশুনে অপরাধ করার মত এবং একটি এগুলো একটি সাইবার ক্রাইম। জনসাধারণকে অনুরোধ করা হচ্ছে এই ধরনের বোকামি না করার জন্য। গত পাঁচ মাসে এই ধরনের কাজ করার জন্য ২৫৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
[qws]Tags: আপডেট খবর,বাংলা খবর,করোনা আপডেট, আজকের রাশিফল, bengalinews, ভারতের খবর, আজকের খবর, আবহাওয়ার খবর,ঝাড়গ্রাম, উপকারিতা, দেশের খবর, আজকের নিউজ,

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel