জেলা

বাড়ির কুলোপুরহিতের সঙ্গে পরকীয়া, প্রেমিককে নিয়ে চক্রান্ত করে শাশুড়িকে খুন পুত্রবধূর

Daughter-in-law kills mother-in-law for plotting with boyfriend

GNE NEWS DESK : বাড়ির কুলো পুরহিতের সঙ্গে চক্রান্ত করে নিজের শাশুড়িকে খুন করে তার পুত্রবধূ। তিনিই প্রথম জানতে পারেন বাড়ির পুরোহিতের সাথে পুত্রবধূর সম্পর্কের কথা। তাই নিজের পথের কাঁটা সরিয়ে ফেলার জন্য ছক কষেন পুত্রবধূ। ইতিমধ‍্যেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে পুত্রবধূ এবং বাড়ির কুলো পুরহিতকে। ঘটনাটি ঘটে পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরের শ‍্যামসুন্দরপুরে।

ঘটনাটি যখন ঘটে তখন শাশুড়ি মৌসুমী গোস্বামী ছিলেন বাড়ির নিচের তলায় নিজের শোবার ঘরে, তার পুত্র কাজ কর্মে ব্যস্ত ছিলেন এবং তার স্বামী স্নান সেরে পূজা করেছিলেন, এবং তার পুত্রবধুর সুস্মিতা রান্নায় ব্যস্ত ছিলেন এবং শিশু কন‍্যাটি ছিল অন‍্যত্র। এমন অবস্থায় বাইরের কেউ কিভাবে ঘরে ঢুকে খুন করতে পারে সেই বিষয় নিয়ে বেশ দ্বন্দ্বে পড়ে ছিলেন পুলিশ। এবং কোন ব্যক্তি যদি কাউকে খুন করতে যায় তাহলে চেঁচানোর আওয়াজ পাওয়া যায় কিন্তু এক্ষেত্রে সেরাম কিছুই ঘটেনি।

সমস্ত কিছু দেখে একটা বিষয় নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছিল যে পরিবারের কেউ এই ঘটনায় জড়িত। এখন প্রশ্ন একটাই সেই ব্যক্তিকে এবং তার স্বার্থটা কি। এক পুলিশ আধিকারিক এর বক্তব্য, “বিষয়টি নিয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে স্বামী ছেলে এবং পুত্রবধূকে টানা জেরা করা হয়।

সেখান থেকে জানা যায় যে শাশুড়ি বৌমার সম্পর্ক কিছুদিন ধরেই ভালো যাচ্ছিল না। এরপরই বাড়ির পুত্রবধূর সঙ্গে পুরোহিতের সম্পর্কের কথা সবার সামনে বেরিয়ে আসে। এখন অব্দি জেলায় যতটুকু স্পষ্ট হয়েছে তা হলো। বাড়ির গিন্নি মৌসুমী তখন সবে স্নান সেরে ঘরে ঢুকেছে। বাড়ির কর্তা তখন ছিল পূজোয় ব্যস্ত।ঠিক তখনই পরিকল্পনামাফিক বাড়ির কুলো পুরোহিত এবং তার পুত্রবধু সুস্মিতা মৌসুমির ঘরে ঢুকে যায়।

এরপর তাকে প্রথমে জাপটে ধরে তারপরে তার পুত্রবধূ মুখে বালিশ চাপা দিয়ে তাকে প্রথমে অজ্ঞান করেন তারপর তার প্রেমিক পুরোহিত গোরাচাঁদ ছুঁরি দিয়ে গলার নলি কেটে দেয়। দীর্ঘ ৯ ঘন্টার জেরার পর শেষ অবধি সবকিছু স্বীকার করে নেয় সুস্মিতা। সেদিন রাতেই তুলে আনা হয় গোরাচাঁদকে।

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel