জেলা

করোনা মহামারির তেজ কমলেই CAA কার্যকর হবে, নির্বাচনের আগে ফের ইঙ্গিত নাড্ডার

GNE NEWS DESK: সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। আর এরই মাঝে বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা (J P Nadda) ঝটিকা সফরে উত্তরবঙ্গে এসেই যেন ঝটকা দিলেন। তিনি পরিস্কার করে বুঝিয়ে দিলেন মহারণে নামার আগে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকেই বিজেপি অন্যতম হাতিয়ার করতে চলেছে। তিনি এদিন নির্দেশ দেন পাশাপাশি রাজ্যের সমস্ত সাংসদকে বাংলার কী কী সমস্যা রয়েছে তার তালিকা তৈরি করতে। এদিন তিনি এও প্রতিশ্রুতি দেন, মোদি সরকার বঙ্গবাসীর চাহিদা ও অভাব দূর করবে।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি সোমবার সকালে বাগডোগরা বিমানবন্দর নামার পরে প্রথমেই ঠাকুর পঞ্চানন বর্মার মূর্তিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে পৌঁছে গিয়েছিলেন। তারপর আনন্দময়ী কালীবাড়িতে পুজো দিতে পৌঁছে যান সেখান থেকে। সেখানে কিছুটা সময় কাটানোর পর সোজা সেবক রোডের একটি হোটেলে এসে দুপুর দেড়টা থেকে সাংগঠনিক বৈঠক সারেন। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে তারপর সাক্ষাৎ সারেন।

এদিন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ফের CAA নিয়ে আলোচনা ওঠান। তিনি সোজাসুজি জানিয়ে দেন, , ‘সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন তো আগেই পাশ হয়ে গিয়েছে। এখন শুধু সেটা কার্যকর করলেই হল। এর জন্য আইনের বিধিও তৈরি করা হচ্ছিল। কিন্তু, করোনার কারণে সেই কাজে ব্যাঘাত ঘটেছে। এই মহামারীর প্রভাব কমলেই বিধি তৈরির কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে। আরও আপনারাও খুব তাড়াতাড়ি এর সুবিধা পাবেন।’

এদিন জেপি নাড্ডা শাসকদলের বিরুদ্ধেও সরব হয়ে মন্তব্য করেন, ‘আমরা সবার ভাল চাই। সবাইকে নিয়ে চলার ক্ষমতা একমাত্র আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজিরই আছে। কিন্তু, মমতাদির সরকার বিভাজনের রাজনীতি করে বাংলাকে ভাগ করতে চাইছে। দেশজুড়ে কেন্দ্রীয় সরকার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প নিলেও সেগুলি এই রাজ্যে চালু করতে দেওয়া হয়নি। রাজনীতির স্বার্থে গরিব কল্যাণে বাধা দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের শাসকদলের জেদের ফলে কৃষকনিধি সম্মান, আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা পাননি এখানকার মানুষ। আমি আপনাদের বলছি বাংলায় যা হয়নি তার তালিকা দিন। মোদি সরকার সব পূরণ করবে। আমরা এই রাজ্যের ক্ষমতা এলে একমাসের মধ্যে চালু হবে আয়ুষ্মান ভারত। ‘

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel