প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলা

ব্রিগেড পরীক্ষায় উত্তীর্ণ জোট, কিন্তু তাতেও সংশয় ভোট প্রাপ্তি নিয়ে

GNE NEWS DESK: বিধানসভা নির্বাচনে প্রাক্কালে রবিবাসরীয় ব্রিগেড সমাবেশকে প্রচারের প্রধান লক্ষ্য করেছিল বাম-কংগ্রেস-আইডিএফ জোট। সেই হিসেবে ব্রিগেডের পরীক্ষায় জোট পাশ করে গেল। একাধিক জোটের নেতারা এই দিন উপস্থিত ছিলেন মঞ্চে। সমাবেশ মঞ্চে ছিলেন সীতারাম ইয়েচুরি, বিমান বসু, অধীর চৌধুরী, আবদুল মান্নান, ডি রাজা, ভূপেশ বাঘেল, আব্বাস সিদ্দিকি, সূর্যকান্ত মিশ্ররা। সমাবেশে জনসমাগম ছিল চোখে পড়ার মত। কিন্তু সমাবেশে জনসাধারণের উপস্থিতি এবং ভোট বাক্সে ভোটের উপস্থিতি দুটি সম্পূর্ণ ভিন্ন অধ্যায়।

গত লোকসভা নির্বাচনের আগেও সিপিএমের ব্রিগেড সমাবেশে ব্যাপক জনসমাগম হয়েছিল। কিন্তু বামেরা একটিও আসন পায়নি। বামেদের প্রাপ্ত ভোট ছিল মাত্র সাত শতাংশ। ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে বড় মিছিল হয় যাদবপুরে। কিন্তু খোদ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য যাদবপুরে হেরে গিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী মণীশ গুপ্তের কাছে। ফলে সমাবেশে লোকসমাগম দেখে ভোট প্রাপ্তি আন্দাজ সম্ভব নয়।

তবে এই সমাবেশে জোটের জন্য প্রাপ্তি রয়েছে বেশ কিছু। যেখানে রাজ্য রাজনীতিতে বিজেপি ও তৃণমূল প্রধান যুযুধান হয়ে দেখা দিয়েছে, সেখানে তৃতীয় জোট শক্তির উপস্থিতি সম্পর্কে রাজনৈতিক ভাবে ওয়াকিবহাল করা গিয়েছে। বাম, কংগ্রেস ও ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের নেতাদের নিজেদের পারস্পরিক বিরোধিতা সত্ত্বেও এক মঞ্চে একসাথে একত্রিত করা ব্রিগেডের সবচেয়ে বড় সাফল্য। বামেদের সঙ্গে আব্বাস সিদ্দিকির আসন সমঝোতা চূড়ান্ত হলেও কংগ্রেসের সঙ্গে এখনও পরিস্থিতি ঠিক হয়নি। তা সত্ত্বেও আব্বাসের সঙ্গে একই মঞ্চে থেকেছেন অধীর চৌধুরী। বিধানসভা ভোটের ঘোষণা পরবর্তী প্রচার শুরুর প্রাক্কালে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গিতে যা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ।

একই রকমের খবর