প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলাভোটযুদ্ধ

ঝাড়গ্রাম সম্মুখ সমরে তৃণমূল-বিজেপি, একদিকে বীরবাহা হাঁসদা অন্যদিকে সুখময় সৎপতি

GNE NEWS DESK: ঝাড়গ্রাম বিধানসভায় প্রার্থী ঘোষণা করেছে বিজেপি ও তৃণমূল দুই পক্ষই। বিজেপি প্রার্থী সুখময় সৎপতি। তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা হাঁসদা।

ঝাড়গ্রাম বিধানসভা আসনটি ২০১৬ সালে তৃণমূলের জেতা আসন হলেও গত লোকসভা ভোটের পর থেকেই ঝাড়গ্রামে বিজেপির ক্ষমতা পরিলক্ষিত হয়েছে। যত দিন গিয়েছে শক্তিশালী হয়েছে সংগঠনও। লোকসভা ভোটে এই বিধানসভায় বিজেপি-তৃণমূল হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছিল। যদিও শেষে অল্প হলেও এগিয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থী। এবারে এই গুরুত্বপূর্ণ আসনে বিজেপি প্রার্থী করেছে জেলা সভাপতি সুখময় সৎপতি।

অন্যদিকে তৃণমূল নিজেদের জেতা আসনে ক্রমশ শক্তিক্ষয় করেছে। তাই ভোটের প্রাক্কালে একটি মোক্ষম রাজনৈতিক পদক্ষেপ নিয়েছেন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর হাত ধরে তৃণমূলে এসেছেন ২১ এর নির্বাচনের ঝাড়গ্রাম কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা হাঁসদা। তিনি ঝাড়গ্রামের আদিবাসী আন্দোলনের নেতা ঝাড়খণ্ড পার্টি(নরেন) এর প্রতিষ্ঠাতা দুই বারের বিধায়ক প্রয়াত নরেন হাঁসদার কন্যা। পেশায় অভিনেত্রী হলেও রাজনীতিতে বীরবাহা মোটেও নবাগতা নন। তিনি ছিলেন ঝাড়খন্ড পার্টি(নরেন) এর নেত্রী।

যার বর্তমান নেত্রী বীরবাহার মা চুনিবালা হাঁসদা। চুনিবালা ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই ঝাড়গ্রাম বিধানসভায় ছিলেন ঝাড়খন্ড পার্টি(নরেন)র প্রার্থী এবং জয়ী তৃণমূল প্রার্থী সুকুমার হাঁসদা নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী। বীরবাহা গত লোকসভা ভোটে ঝাড়গ্রাম লোকসভা কেন্দ্রে ঝাড়খন্ড পার্টি(নরেন) এর প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। যদিও ঝাড়গ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রে পেয়েছিলেন মাত্র ১৮১৬ টি ভোট। কিন্তু এক্ষেত্রে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ ভিন্ন। বীরবাহা দাঁড়িয়েছেন তৃণমূলের হয়ে তৃণমূলের জেতা আসনে।

সেই সঙ্গে তাঁর মা চুনিবালা হাঁসদা ঘোষণা করেছেন ঝাড়খন্ড পার্টি(নরেন)র পক্ষ থেকে এই নির্বাচনে তাঁরা ঝাড়গ্রামে কোন প্রার্থী দেবেন না। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন আদিবাসী সংগঠনগুলিকেও তৃণমূলকে সমর্থনের জন্য অনুরোধ করেছেন তিনি। যেই বিধানসভা কেন্দ্রে মোট ভোটের ২৬% আদিবাসী জনগনের, সেখানে এই পদক্ষেপ তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহাকে আশান্বিত করবে।

একই রকমের খবর