প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলা

জঙ্গলমহলের বিজেপিকে জব্দ করতে স্বাস্থ্য সাথীকেই হাতিয়ার করলেন যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক বন্দোপাধ্যায়

GNE NEWS DESK: “দিলীপ ঘোষ বলছে স্বাস্থ্য সাথী ভাঁওতা, কিন্তু এখানে ঝাড়গ্ৰামে দিলীপ ঘোষ এর দাদা বৌদি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করে বলছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিন্দাবাদ,আর পাশের পুরুলিয়ার সাংসদের পরিবার করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের কার্ড।”

শুক্রবার নয়াগ্ৰামের খড়িকামাথানীতে তৃণমূলের নয়াগ্ৰাম বিধানসভার প্রার্থী দুলাল মুর্মু এবং গোপীবল্লভপুর বিধানসভার প্রার্থী ডাক্তার খগেন্দ্রনাথ মাহাত এর সমর্থনে ভোট প্রচারে এসে জঙ্গলমহলের বিজেপিকে এভাবেই বিঁধলেন যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। এদিন অভিষেক বন্দোপাধ্যায় তথ্য দিয়ে আরও দাবি করেন, বিজেপি যে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের কথা বলছে সেখানে বাংলার সাড়ে দশ কোটি জনসংখ্যার মধ্যে মাত্র এক কোটি মানুষ সুবিধা পাবেন।

বাড়িতে মোটরসাইকেল, স্মার্ট ফোন,পাকা ছাদ থাকলে স্বাস্থ্য সাথীর সুবিধা মানুষ পাবে না,অন্যদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার প্রতিটি মানুষের জন্য স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের সুবিধা দিয়েছেন। সঙ্গে অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এদিন খড়িকামাথানীর জনসভা থেকে বলেন, বিজেপির উন্নয়ন মানে কৃষক আত্মহত্যা আর নাবালিকার গণধর্ষণ, বিজেপির উন্নয়ন নারী নির্যাতন, বিজেপির উন্নয়ন মানুষের পাত খালি শুধু বড় বড় ভাষণ। একদিকে ভাষণ অন্যদিকে রেশন, একদিকে অনাচার অন্যদিকে শান্তি কোনটা আপনারা গ্রহণ করবেন সেটা আপনাদের ব্যপার‌। এভাবেই এদিন বিজেপিকে তুলোধুনো করেন যুব নেতা অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। সঙ্গে আরও বলেন, বিজেপি যদি এত উন্নয়ন করে থাকে তাহলে কেন্দ্রে মোদী বাবু সাত বছর রাজত্ব করলেও রিপোর্ট কার্ড কোথাও? গত ১৯ সালের পর থেকে তো ঝাড়গ্ৰামের লোকসভা সিটটি জিতে বসে আছেন এখানকার সাংসদ কুনার হেমব্রম, কিন্তু করোনা দুর্দিনে মানুষের পাশে দেখা যায়নি সাংসদকে। পাশাপাশি অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এদিন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা অমিত শাকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েনি।বলেন,পাশের খড়্গপুরের থাকলেও ঝাড়গ্ৰামের নির্ধারিত সভায় আসতে পারেনি অমিত শা।

সঙ্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের মুখস্থ করা বাংলা বলার চেষ্টাকে চ্যালেঞ্জ করে বলেন,আমার থেকে বয়সে বড় বিজেপির নেতারা, কিন্তু চ্যালেঞ্জ করছি আমার সামনে এসে শুধু দশটা মিনিট বাংলা বলে দেখান।এদিন নয়াগ্ৰামের নির্বাচনী সভা থেকে তৃণমূলের ইস্তেহারের কথা তুলে ধরে বলেন, বাংলার ক্ষমতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুনরায় ফিরলে প্রতিটি বাড়িতে রেশন পৌঁছে যাবে বিনা পয়সায়, মায়েরা হাত খরচের জন্য মাসিক অর্থ সাহায্য পাবেন।

একই রকমের খবর