প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলা

“শুভেন্দু অধিকারীকে ক্ষমতাশালী তৃণমূল নেতা ছিলেন”, স্বীকারোক্তি প্রশান্ত কিশোরের

GNE NEWS DESK: এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি করলেন বিধানসভা ভোটে শাসকদল তৃণমূলের ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোর। তিনি বলেন, শুভেন্দু অধিকারীকে ক্ষমতাশালী তৃণমূল নেতা ছিলেন। এছাড়াও রাজ্যের বিধানসভা ভোট ও বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়েও মন্তব্য করেছেন তিনি।

বিধানসভা নির্বাচনে একই জেলায় তিন চার দফায় ভোট করানো নিয়ে প্রশ্ন তোলেন প্রশান্ত কিশোর।
প্রশান্ত কিশোরের বক্তব্য, লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি যেসব আসনে এগিয়ে ছিল সেখানে নির্বাচন প্রথম চার থেকে পাঁচ দফার মধ্যে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে যেসব জায়গায় তৃণমূলের প্রভাব সেখানকার আসনগুলিকে রাখা হয়েছে ষষ্ঠ, সপ্তম আর অষ্টম দফায়। তিনি অভিযোগ করেন, নদিয়া জেলার উত্তরে তৃণমূলের প্রভাব বেশি আর দক্ষিণে বিজেপি। দক্ষিণে আগে ভোট হচ্ছে উত্তরে পরে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৩১ টি আসনের মধ্যে চারটি আসনে কেন আগে নির্বাচন তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

গত ডিসেম্বর মাসে প্রশান্ত কিশোর টুইট করে বার্তা দেন, রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির আসন সংখ্যা দুই অংক পার হবে না। সেই বিষয়ে প্রশান্ত বলেন, সেই সময় এমন পরিস্থিতি তৈরি করা হয়েছিল, বলা হচ্ছিল বিজেপি ২০০র বেশি আসন পাবে। সেই সময় পরিস্থিতি তা ছিল না, তা নিয়েই মন্তব্য করেছিলেন তিনি। যদিও নিজের বক্তব্য বজায় রেখেছেন তিনি।

বিধানসভা ভোটের আগে একাধিক প্রথম সারির তৃণমূল নেতা প্রশান্ত কিশোরকে প্রকাশ্যে অভিযুক্ত করে দল ছেড়েছেন। দল ছেড়েছেন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারীও। প্রকাশ্যে না বললেও মনে করা হয় প্রশান্ত কিশোর থেকেই তাঁর দলের সঙ্গে সংঘাতের সূত্রপাত। সেই প্রসঙ্গে পিকে বলেন, তিনি কাজ করতে এসেছেন পশ্চিমবঙ্গে। কাজটা হল তৃণমূলকে জেতানো। কোনও বন্ধু তৈরি করতে তিনি আসেননি। শুভেন্দু সম্পর্কে তাঁর মূল্যায়ন, শুভেন্দু অধিকারী ক্ষমতাশালী তৃণমূল নেতা ছিলেন। যদিও তাঁর বক্তব্য, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে তৃণমূল নতুন করে গঠন করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে যদি কেউ মনে করে থাকেন, তাঁকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না, তাতে প্রশান্ত কিশোরকে দায়ী করা যাবে না। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে শুভেন্দু অধিকারী কোনও ফ্যাক্টর নন বলেও মন্তব্য করেন প্রশান্ত কিশোর।

একই রকমের খবর