প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলাভোটযুদ্ধ

সংযুক্ত মোর্চার জোটে ফাটলের ইঙ্গিত! তৃণমূল প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার আবেদন কৃষ্ণগঞ্জের আইএসএফ প্রার্থীর

GNE NEWS DESK: কয়েকদিনের মধ্যেই রাজ্যে পঞ্চম দফার ভোট গ্রহণ। তারই আগে নদিয়ার সংযুক্ত মোর্চার জোটের অন্তর্দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে। কৃষ্ণগঞ্জের সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী আইএসএফের অনুপকুমার মণ্ডল জনগনের উদ্দেশ্যে তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। যা নিয়ে চাঞ্চল্য রাজ্য রাজনীতিতে।

নদীয়ার একাধিক বিধানসভা কেন্দ্রে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীদের নিয়ে ক্ষোভ–বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল প্রার্থী ঘোষণার পর থেকেই। তার মধ্যে অন্যতম চাপড়া ও কৃষ্ণগঞ্জ বিধানসভা। দুই কেন্দ্রেই সিপিআইএম নতুন করে প্রার্থী দাঁড় করায়। চাপড়ায় আইএসএফ প্রার্থী কাঞ্চনা মৈত্রর পাশাপাশি জাহাঙ্গির আলি বিশ্বাসকে সিপিআইএম প্রার্থী করেছে এবং কৃষ্ণগঞ্জে আইএসএফ প্রার্থী অনুপকুমার মণ্ডলের পাশাপাশি সিপিআইএম ঝুনু বৈদ্যকে প্রার্থী করেছে।

কৃষ্ণগঞ্জের আইএসএফ প্রার্থী অনুপকুমার মণ্ডলের অভিযোগ, সংযুক্ত মোর্চার পক্ষ থেকে আইএসএফ প্রার্থী হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণা করা হয়। কিন্তু মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর থেকেই সিপিআইএমের তরফে তাঁকে মনোনয়ন প্রত্যাহারের জন্য চাপ দেওয়া হতে থাকে। তিনি রাজি না হওয়ায় ঝুনু বৈদ্যকে প্রার্থী করে সিপিআইএম। এমনকি এলাকায় সিপিএম প্রার্থীকে মোর্চার প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে দেওয়াল লিখন ও প্রচারও শুরু হয়। এরপর সিপিআইএম প্রার্থীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন অনুপ মন্ডল। অনুপবাবু জানান, ঝুনু বৈদ্যকে প্রার্থী করায় সংযুক্ত মোর্চার অন্যান্য শরিকদের ভোট আমি পাব না। আবার সিপিআইএম প্রার্থী জিততে পারবে না। তাই সাম্প্রদায়িক বিজেপিকে একমাত্র তৃণমূল কংগ্রেস রুখতে পারবে বলে আমার মনে হয়। তাই আমার অনুগামীদের জোড়াফুলে ভোট দেওয়ার আহ্বান করেছি। 

এই প্রসঙ্গে সিপিআইএম প্রার্থী ঝুনু বৈদ্য বলেন, “উনি নিজের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত নিতেই পারেন। তবে আমার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগের কিছু জানি না।” তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ডঃ তাপসকুমার মণ্ডল বলেছেন, “গত দু’বছরে এলাকার মানুষকে বিজেপি ঠকিয়েছে। ওঁর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। অন্যান্য বিরোধীরাও আমাদের সঙ্গে শামিল হলে তাঁদের গ্রহণ করা হবে।”

Related Articles