১.৭০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী, জেনে নিন অর্থনৈতিক প্যাকেজ

দেশের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ আজ করোনার ভাইরাসের মোকাবেলায় একটি অর্থনৈতিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। অর্থমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনার আওতায় ১.৭০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। এই অর্থ অভাবীদের সাহায্য করার জন্য দেওয়া হচ্ছে। অর্থমন্ত্রী ত্রাণ প্যাকেজের সমস্ত শ্রেণীর লোকদের যত্ন নিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন যে উজ্জ্বলা প্রকল্পের সুবিধাভোগীরা আগামী তিন মাসের জন্য বিনামূল্যে রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার পাবেন, এতে ৮.৩ কোটি দরিদ্র পরিবার উপকৃত হবে।

অর্থমন্ত্রী করোনার ভাইরাসজনিত অসুস্থ মানুষদের সহায়তায় কাজ করা চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের ত্রাণও ঘোষণা করেছিলেন। অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন যে সরকার এই ধরনের লোকদের ৫০ লক্ষ টাকার একটি বীমা কভার দেবে। পাঁচ কোটি পরিবারকে উপকৃত করার জন্য সরকার একশো দিনের দৈনিক মজুরি ১৮২ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০২ টাকা করেছে।

আসুন জেনে নেওয়া যাক প্যাকেজ:
• এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে দেশের ৮.৬৯ কোটি কৃষককে প্রত্যেক কে দুই হাজার টাকা অগ্রিম অর্থ প্রদান করা হবে।
• করোনার ভাইরাসের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করা প্রতি পরিবার পঞ্চাশ লক্ষ টাকার বীমা কভার পাবেন।
• রেশন দোকান থেকে ৮০ কোটি পরিবার তিন মাসের জন্য পাঁচ কেজি গম বা চাল এবং এক কেজি ডাল বিনামূল্যে পাবেন।
• একশো দিনের কাজের এর আওতায় দৈনিক মজুরি ১৮২ টাকা থেকে ২০২ টাকায় বৃদ্ধি করা। এতে পাঁচ কোটি পরিবার উপকৃত হবে।
• তিন কোটি দরিদ্র বৃদ্ধ, দরিদ্র বিধবা ও দরিদ্র প্রতিবন্ধীদের এক হাজার টাকা অনুদানের ঘোষণা।
• ২০ কোটি জন ধন অ্যাকাউন্টধারীদের মহিলাদের পরের তিন মাসের জন্য মাসে ৫০০ টাকা দেওয়া হবে, যাতে তারা বাড়ির চাহিদা মেটাতে সহায়তা করতে পারে।

• উজ্জ্বলা প্রকল্পের সুবিধাভোগীরা আগামী তিন মাসের জন্য বিনামূল্যে এলপিজি সিলিন্ডার পাবেন, এতে ৮.৩ কোটি দরিদ্র পরিবার উপকৃত হবে।
• ৬.৩ লক্ষ মহিলা স্ব-সহায়তা গোষ্ঠীর আনুগত্যমুক্ত সুদ দ্বিগুণ হয়ে ২০ লক্ষ টাকা, সাত কোটি পরিবার উপকৃত হবে।
• সরকার আগামী তিন মাসের জন্য প্রতিষ্ঠানে নিয়োগকর্তা ও কর্মচারী উভয়ের ভবিষ্যতের তহবিলের অবদান জমা দেবে, যেখানে ৯০ শতাংশ কর্মচারী ১৫,০০০ টাকা বেতনের সাথে রয়েছেন।