জাতীয়

বিমান চলাচল সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশিকা কেন্দ্রের

লকডাউন শেষ হলেই বিমান পরিষেবা চালু হবে বলে জানিয়েছে এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়া।

জানা গেছে, বেশ কিছু শর্ত মেনেই চালু হবে বিমান পরিষেবা। প্রথমে ৩০ শতাংশ যাত্রী দিয়েই বিমান পরিষেবা চালু করা হবে। তার পর ধীরে ধীরে পরিষেবা স্বাভাবিক করা হবে বলে জানা গেছে।

বিমান পরিষেবা চালু করার জন্য একাধিক নির্দেশ দিয়েছে এএআই।

• প্রথমে দেশে বড় শহর ও রাজ্যের রাজধানী গুলির মধ্যে বিমান চলাচল করবে।
• সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিমানবন্দরে বসার জায়গা করতে হবে।
• বিমানে যাতায়াতকারী প্রতিটি যাত্রীকে তাদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্য জানাতে হবে।
• সন্দেহজনক করোনা আক্রান্তদের যাতে আইসোলেশন করা যায়। তার ব্যবস্থা রাখতে হবে।
• বিমানযাত্রীদের শারীরিক পরীক্ষা করার জন্য চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী রাখতে হবে।
• বিমানবন্দরের কর্মীরা যাতে কাজে যোগ দিতে পারে এবং বিমান যাত্রীরা যাতে বিমানবন্দরে পৌঁছাতে পারে, তার ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্ট রাজ্যকে।
• কর্মরত কর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম দিতে হবে।
• বিমানবন্দরের রেলিং, এক্স-রে মেশিন এবং ট্রলি গুলিকে নিয়ম করে জীবাণুমুক্ত করতে হবে।
• শিশুদের খেলার জায়গায় ভীড় হতে দেওয়া চলবে না।
• হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং হাত ধোওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।
• বিমানবন্দর চত্ত্বরে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সামাজিক দূরত্বের নিয়ম মেনে চলার জন্য সচেতন করতে হবে।

লকডাউন পরবর্তী সময়ে বিমান চলাচল স্বাভাবিক করতে এরকমই একগুচ্ছ নির্দেশিকা দিয়েছে এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়া।

Tags
Advertisement with GNE Bangla
Back to top button
Close