জাতীয়

মদের লাইনে দাঁড়ানো ব্যক্তিদের রেশন বাতিলের দাবি

করোনা ভাইরাসের গোষ্ঠী সংক্রমণ ঠেকাতে শুরু হয়েছিল সারা দেশ জুড়ে লকডাউন। এখন চলছে তৃতীয় পর্যায়ের লকডাউন। ফলে বন্ধ দোকান পাট, অফিস আদালত, বাদ যায়নি মদের দোকানো। ফলে সমস্যায় পড়ে সুরাপ্রেমী থেকে আমজনতা। রোজগার হারিয়ে সরকারের কাছ থেকে দাবি উঠছে অর্থ সাহায্যের। এই মধ্যেই ফ্রীতে রেশন ব্যবস্থা শুরু হয়েছে। উজলা যোযনাই গ্যাসে ভর্তুকি দিচ্ছে এবং মহিলাদের একাউন্টে তিন মাস ৫০০ টাকা করে দিবে কেন্দ্র সরকার।

তৃতীয় দফার লকডাউনে কিছুটা শিথিল করেছে। কিছু কিছু দোকান পাট খোলার নির্দেশ দিয়েছে। আর এই সময় দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা চাঙ্গা করার জন্য মদ দোকান খোলার নির্দেশ দিয়েছে। যা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। ৪০ দিন পর মদ দোকান খোলায়, মদ দোকান গুলিতে হুড়মুড়িয়ে পড়ে সুরাপ্রেমীরা। লকডাউন উপেক্ষা করেই দীর্ঘ লাইন পড়ে যায় মদ দোকান গুলিতে। ফলে সামাজিক দূরত্ব বজায় লাটে উঠেছে।

এবার সোস্যাল মিডিয়ায় দাবি উঠেছে যারা দাম বাড়িয়ে দেওয়ার পরও মদ কিন্তে পারে। তাদের ফ্রীতে রেশন দেওয়া বন্ধ করা হোক। এরকম দাবিতেই সোচ্চার হয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় দাবি উঠেছে। কেও কেও লিখছে ” যারা মদ দোকানে লাইন দিচ্ছে, তাদের চিহ্নিত করে তাদের রেশন দেওয়া বন্ধ করা হোক।” আবার কেউ লিখছে “যারা মদ কিনতে পারে, তারা চাল আটাও কিনতে পারে।” আবার কোথাও দেখা যাচ্ছে “রেশন কার্ডে মদ কেনার ছাপ দেওয়া হোক। যাতে করে তারা ফ্রীতে রেশন না পান।” এরকম দাবিতে ছয়লাপ সোস্যাল মিডিয়া।

Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close