জাতীয়

পায়ে হেঁটে হাজার কিলোমিটার অতিক্রম করে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করলেন প্রেমিক

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় দেশব্যাপী লকডাউনের কারণে লোকেরা বাড়িতেই রয়েছেন। লক ডাউনে প্রেমিক-প্রেমিকারা একে অপরের সাথে দেখা করতে না পারার জন্যও উদ্বিগ্ন। কিন্তু প্রেমের আনন্দ যে কি জিনিস যারা প্রেম করেছে তারাই জানে। সেই প্রেমের টানেই গুজরাটের এক প্রেমিক তার প্রেমিকার সাথে দেখা করতে পায়ে হেঁটে গিয়েছিলেন বারাণসী।

বারাণসীতে এমন একটি ছবি দেখা গিয়েছিল যা সবাইকে অবাক করে দেয়। আসলে গুজরাটের এক ছেলে চার মাস আগে একটি মিস কলের মাধ্যমে বারাণসীর একটি মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব হয়েছিল। কথোপকথনের প্রক্রিয়াটি কখন বন্ধুত্ব থেকে প্রেমে পরিণত হয় তারা দুজনই জানতে পারেনি। তারপর করোনা সংক্রমণের ফলে দেশে লকডাউন শুরু হয়েছিল। সমস্ত রাজ্য এবং জেলার সীমানা সিল করা হয়। তবে প্রেম কখনও কোনও সীমানায় আবদ্ধ হয় নি।

লক ডাউনের মধ্যে ছেলেটি গুজরাট থেকে মেয়েটির সাথে দেখা করতে হাঁটতে শুরু করেছিল। অনেক দিন ধরে ছেলেটি ক্ষুধা ও তৃষ্ণা সহ্য করে শহর থেকে অন্য শহরে এগিয়ে যেতে থাকে। পায়ে ফোসকা লাগলেও সে থামেনি। অবশেষে বুধবার সন্ধ্যায় তিনি বারাণসীতে পৌঁছেছেন। তিনি বারাণসীতে পৌঁছামাত্রই মেয়েটিকে ফোন করে ডাকলেন। মেয়েটি এক মুহুর্তের জন্যও বিশ্বাস করেনি। কিন্তু মোবাইলে ভয়েস শুনে মেয়েটিও তার সাথে দেখা করতে বাড়ি থেকে থেকে চলে যায়। দুজনেরই দেখা হয়েছিল।

প্রেমিক ও প্রেমিকা বারাণসীর দাফি টোল প্লাজায় পৌঁছেছিল এবং দুজনেই কথা বলতে বসেছিল। এদিকে মেয়েটির খোঁজ না পেয়ে মেয়েটির মা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। মেয়েটির মোবাইল লোকেশনটি বারাণসীর দাফি টোল প্লাজায় পাওয়া গেছে। মিরজামুরাদ থানা পরিবারের সদস্যদের সাথে নিয়ে সেখানে উপস্থিত মেয়েটিকে ধরে পরিবারের সদস্যদের কাছে তুলে দেয়। এবং ছেলেটিকে করোনা মেডিকেল চেকআপ করিয়েছিল। ছেলেটির স্বাস্থ্য সংক্রান্ত রিপোর্ট আসার পর তাকে বাড়িতে পাঠানো হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।


Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close