জাতীয়

করোনার ভয়ে ছেলে, পুত্রবধূ ও নাতনিকে বাড়িতে ঢুকতে দিলেন না মা

করোনা ভাইরাসের কারণে আজ যারা ক্ষুধার্ত পেটে এখান থেকে ওখানে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তারা সংকটে পড়েছেন। সেই রকমের একটি ঘটনার খবর এসেছে মহারাষ্ট্র থেকে। গ্রামে কর্মসংস্থানের অভাবে মহারাষ্ট্রের চন্দ্রপুর জেলা থেকে আওরঙ্গবাদে কাজ করতে যাওয়া একটি পরিবার তাদের গ্রামে ফিরে এসেছিল। করোনার সময়ে রক্তের সম্পর্কের জন্য এর চেয়ে বড় অপমানের কারণ আর কী হতে পারে। এই ঘটনার পরে এখন প্রশ্ন উঠছে।

তারসা, চন্দ্রপুর জেলার সীমান্তে অবস্থিত একটি ছোট্ট গ্রাম। এই গ্রামে কর্মসংস্থানের অভাবে গ্রামের এক যুবক কাজের সন্ধানে আওরঙ্গবাদে গিয়েছিল। মেয়ে এবং স্ত্রী সাথে আওরঙ্গবাদে থাকাকালীন করোনার কারণে লকডাউন শুরু হয়। আওরঙ্গবাদ থেকে অনেক কষ্ট করে ওই যুবক তার স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে গ্রামে ফিরে আসেন। কিন্ত করোনার ভয়ে যুবককের মা তাদের তিনজনকে বাড়িতে ঢুকতে দিলেন না। কোন উপায় না দেখে ছেলেটি গ্রামঞ্চায়েতের কাছে নিজেরাকে আলাদা করে থাকতে দেওয়ার জন্য একটি স্কুল খোলার অনুরোধ করেছিলেন, কিন্তু গ্রাম পঞ্চায়েতও তাকে সমর্থন করতে অস্বীকার করেছিল।

পুরো তিন ঘন্টা এই যুবকটি তার সন্তান এবং স্ত্রীকে সাথে করে গ্রাম পঞ্চায়েতের বিদ্যালয়ের সামনে শুয়ে রইল। কেউ এই ঘটনা সম্পর্কে পুলিশকে অবহিত করেছিলেন। পুলিশ হস্তক্ষেপের পরে গ্রাম পঞ্চায়েত স্কুলটি খুলে তাদের থাকার জন্য ব্যবস্থা করে। তারপর মা নিজেই খাবার নিয়ে এসে তার ক্ষুধার্ত ছেলে, পুত্রবধূ এবং নাতিকে খাবার দিলেন।

Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close