জাতীয়

জোর করে পুলিশ সৎকার করল ধর্ষিতার দেহ

GNE NEWS DESK : তখন রাত প্রায় পৌনে তিনটে স্থানীয় সূত্র মারফত খবর গ্রামের লোকজন আত্মীয়-স্বজনকে ঘরে তালা বন্ধ করে রেখে উত্তরপ্রদেশ (uttar Pradesh) পুলিশ নির্যাতিতার দেহ জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে সৎকার করে তারা।সঙ্গে তার বাবা কেও নিয়ে যায় তারা। একটানা ১৫ দিন অনবরত মৃত্যুর সাথে লড়াই করার পর মঙ্গলবার দিল্লির (Delhi) সফদরজং হাসপাতালে মৃত্যু হয় ১৯ বছরের নির্যাতিতা তরুণীর।তারপর হাসপাতাল থেকে দেহ ছাড়ানো নিয়েও পুলিশের সঙ্গে ঝামেলা বেধে ছিল নির্যাতিতার পরিবারের।

জোর করে দেহটি হাসপাতাল থেকে নিয়ে চলে যায় বলে অভিযোগ নির্যাতিতার বাবা ও দাদার। তারপর তাদের সঙ্গে নিয়ে হাথরসের উদ্দেশ‍্যে পুলিশ রওনা দেয়। দেহটি হাথরসে বাইরে পৌঁছালে সুবিচারের দাবিতে নির্যাতিতার আত্মীয়-স্বজন ও গ্রামবাসী পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু করে।পুলিশের সাথে প্রবল বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে তারা ।ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও দেখা যাচ্ছে পুলিশকর্মীরা উল্টে নির্যাতিতার পরিবারের দিকে আঙুল তুলছে।এরপর ঘটলো আরো এক চাঞ্চল্যকর ঘটনা।পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নির্যাতিতের দাদা বলেন,” জোর করে তারা মাঝরাতে এসে বোনের দেহ সৎকারের জন‍্য নিয়ে যায় ,সঙ্গে তারা বাবাকেও নিয়েছে।বোনের দেহ একবারের জন‍্য বাড়ির ভিতর ঢোকাতে দেয়নি তারা”।

কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী তীব্র নিন্দা করেছেন এ ঘটনার। তিনি বলেছেন,” ভারতবাসী হিসেবে আমাদের সকলের জন্য এক লজ্জাজনক ব্যাপার, ভারতের মাটিতে দাঁড়িয়ে এক কন্যাকে ধর্ষণ করে খুন করা হলো,এমন কি তার পরিবারের কাছ থেকে তার দেহ অন্যায় ভাবে অন‍্যায়ভাবে ছিনিয়ে নিয়ে সৎকার করা হলো”।গত ১৪ই সেপ্টেম্বর গ্রামেরই চারজন যুবক মিলে গনধর্ষন করে এই তরুনিকে। অকথ‍্য অত‍্যাচার করা হয় তার ওপর। তরুনির শরীরে একাধিক জায়গায় ক্ষতের দাগ ছিল।তার নীচের পুরো অংশ অবশ হয়ে গিয়েছিল এমনকি শিরদাঁড়া ও ঘারেও মারাত্মক চোট ছিল তার। এরপর টানা ১৫ দিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করার পর মৃত্যুর কাছে হার মেনে নেয় সে।তবে পুরো ঘটনায় সবচেয়ে বেশি অসহযোগিতার আঙ্গুল উঠেছে পুলিশের দিকে।ঘটনা ঘটার বেশ কয়েকদিন পরে তদন্ত শুরু করা থেকে শুরু করে জোর করে তরুনীর দেহ সৎকার করা সহ প্রবল অসহযোগিতার আঙ্গুল উঠেছে পুলিশের দিকে।

[qws]Tags: আপডেট খবর,বাংলা খবর,করোনা আপডেট, আজকের রাশিফল, bengalinews, ভারতের খবর, আজকের খবর, আবহাওয়ার খবর,ঝাড়গ্রাম, উপকারিতা, দেশের খবর, আজকের নিউজ,

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel