জাতীয়

অতীতের স্মৃতি ভুলে জম্মু-কাশ্মীরে চলছে উন্নয়নের কর্মযজ্ঞ, বাড়ছে যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ

GNE NEWS DESK: করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষের কর্মসংস্থান নিয়ে ভাবছে সেখানকার পল্লী উন্নয়ন অধিদপ্তর (ডিআরডি)। এরই মধ্যে উপত্যকার রাজৌর জেলার প্রাঞ্জগ্রাইন ব্লকের লোকদের চাকরি দেওয়া শুরু করেছে ডিআরডি। প্রাঞ্জগ্রাইন ব্লকে ১১টি পঞ্চায়েত রয়েছে। যার মধ্যে আটটি ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত।

চাকরিগুলো মহাত্মা গান্ধী ন্যাশনাল রুরাল এমপ্লয়মেন্ট গ্যারান্টি অ্যাক্ট (এমজিএনআরইজিএ) প্রকল্পের আওতায় দেওয়া হচ্ছে। আবার এর দৈনিক মজুরিতে শ্রমিকদের বেশ উপকার হচ্ছে। কারোনা ভাইরাসের কারণে তাদের কর্মসংস্থান পেতে সমস্যা হচ্ছিল।

ওই এলাকার ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিসের (বিডিও) নওরীন চৌধুরী বলেছেন, চাকরির অন্যান্য বিকল্পের অভাবে স্থানীয়রা যাতে নিজেদের বজায় রাখতে পারে, সে জন্য তাঁর বিভাগ কভিড-১৯ মহামারির সময় আরো বেশি কাজ করার চেষ্টা করছে।

তিনি বলেন, আমরা সীমান্ত অঞ্চলে প্রচুর কাজ করেছি। আমরা এই মহামারির সময়ে আরো বেশি কাজ করার চেষ্টা করছি। যাতে লোকেরা ঠিকমতো জীবিকা নির্বাহ করতে পারে এবং নিজেদের টিকিয়ে রাখতে পারে। একই সঙ্গে এলাকার উন্নয়নও আমাদের উদ্দেশ্য।

পঞ্চায়েত পরিদর্শক মুনীর হুসেনের মতে, এখানকার বেশির ভাগ মানুষ দরিদ্র এবং দৈনিক মজুরির শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। তারা ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিসের কাজের কারণে ঠিকমতো জীবিকা নির্বাহ করছেন। এমজিএনআরইজিএ প্রকল্পের অধীনে দেওয়া চাকরি প্রচুর লোককে কর্মসংস্থান দিচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে প্রাঞ্জগ্রাইনের সরপঞ্চ মোহাম্মদ হুসেনও পাকিস্তান সীমান্তে গোলাগুলি করার কারণে গ্রামবাসী যে সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিল, সেদিকেও ইঙ্গিত করেছেন। যা এই অঞ্চলের উন্নয়নমূলক কাজ ব্যাহত করে।

মোহাম্মদ হুসেন বলেন, এটি একটি সীমান্তবর্তী অঞ্চল। প্রায়শই আন্তঃসীমান্ত গোলাগুলির শিকার হয়। তবে পল্লী উন্নয়ন অধিদপ্তরের প্রকল্পগুলো স্থানীয়দের অনেক বেশি সহায়তা করছে এবং কর্মসংস্থান দিচ্ছে।

সমাজসেবক নাজিরও প্রশাসনের কাজের প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেছেন, ওই এলাকায় আমাদের পঞ্চায়েতগুলো কিছু ভালো কাজ করছে। আমরা চাকরি না পাওয়ার বিষয়ে কোনো ধরনের অভিযোগও শুনিনি।

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel