প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জাতীয়

রাহুলের প্রচারে ৪৮ ঘণ্টার নিষেধাজ্ঞা, দিলীপকে নোটিস,শুভেন্দুকে সতর্কীকরণ, একাধিক পদক্ষেপ কমিশনের

GNE NEWS DESK: সোমবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচারে ২৪ ঘন্টার নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। মঙ্গলবারও একাদিক কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করল নির্বাচন কমিশন। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার প্রচারে ৪৮ ঘন্টার নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল। শুভেন্দু অধিকারীকে নোটিস আগেই দেওয়া হয়েছিল। এবার তাঁর বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ‘অসন্তোষ’ ব্যক্ত করে সতর্ক করা হল। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নির্বাচনী প্রচারে বক্তব্যর প্রেক্ষিতে নোটিস দিল নির্বাচন কমিশন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে নোটিস দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। মমতার প্রচারে নিষেধাজ্ঞার পর শুভেন্দু অধিকারীর নোটিসের জবাব সম্পর্কে অসন্তোষ প্রকাশ করে তাঁকে সতর্ক করা হল। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা শীতলকুচি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন। তিনি বলেছিলেন, “৪ জন নয়, শীতলকুচিতে ৮ জনকে মেরে ফেলা উচিত ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর। কেন কেন্দ্রীয় বাহিনী ৪ জনকে মারল, তার জন্য বরং শো কজ করা উচিত তাদের।” যা নিয়ে তীব্র চাঞ্চল্য তৈরি হয় রাজ্য রাজনীতিতে। উস্কানিমূলক বক্তব্যের অভিযোগে মঙ্গলবার দুপুর ১২টা থেকে আগামী বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত তাঁর প্রচারের উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল করেছে নির্বাচন কমিশন।

বাদ পড়েননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও। রবিবার দলীয় প্রার্থী পার্নো মিত্রর সমর্থনে বরাহনগরের জনসভায় দিলীপ বলেছিলেন, “ভয় দেখিয়ে রাজনীতি করার দিন চলে গিয়েছে। ভয় উপেক্ষা করে মানুষ ভোট দিচ্ছেন। ১৭ তারিখ সকালেও লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিন। বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। কেউ লাল চোখ দেখাতে পারবে না। আমরা আছি। আর যদি বাড়াবাড়ি করে, শীতলখুচিতে দেখেছেন কী হয়েছে। জায়গায় জায়গায় শীতলখুচি হবে।” তিনি আরও বলেন, “দুষ্টু ছেলেরাই কোচবিহারের শীতলখুচিতে গুলি খেয়েছে। এই দুষ্টু ছেলেরা বাংলায় থাকবে না। সবে শুরু হয়েছে। যারা ভেবেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী বন্দুকটা দেখোনার জন্য নিয়ে এসেছে, তারা বুঝে গিয়েছে ওই গুলির গরম কেমন।

সারা বাংলায় এটা হবে।” তাঁর বক্তব্যের বিরুদ্ধে কমিশনে তৃণমূলের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়। তারই প্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষকে নোটিস দিল নির্বাচন কমিশন। বুধবার সকাল ১০টার মধ্যে তাঁকে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মনে করা হচ্ছে, জবাবে সন্তুষ্ট না হলে আরও কড়া পদক্ষেপ নিতে পারে নির্বাচন কমিশন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.