প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
রাজনীতিভোটযুদ্ধরাজ্য

‘বাড়াবাড়ি করলে আরও শীতলকুচি হবে’, হুমকি Dilip Ghosh-র, তীব্র বিতর্ক রাজনৈতিক মহলে

GNE NEWS DESK: শনিবার বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে গুলি চালিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। মৃত্যু হয়েছে ৪ জন গ্রামবাসীর। আহত বেশ কয়েকজন। উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি। সেই সময়ে এই বিষয় নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বাড়াবাড়ি করলে রাজ্যের অন্য জায়গাতেও শীতলকুচির মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে বলে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিলেন তিনি।

রবিবার দলীয় প্রার্থী পার্নো মিত্রর সমর্থনে বরাহনগরের জনসভা করেন দিলীপ ঘোষ। সেখানে তিনি বলেন, “ভয় দেখিয়ে রাজনীতি করার দিন চলে গিয়েছে। ভয় উপেক্ষা করে মানুষ ভোট দিচ্ছেন। ১৭ তারিখ সকালেও লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিন। বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। কেউ লাল চোখ দেখাতে পারবে না। আমরা আছি। আর যদি বাড়াবাড়ি করে, শীতলকুচিতে দেখেছেন কী হয়েছে। জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।”
তিনি আরও বলেন, “তৃণমূলের আমলে মা-বোনেরা বাড়ি থেকে বেরোতে পারেন না। মেয়েরা টিউশন গেলে চিন্তায় থাকে পরিবার। বাজারে গেলে মা-বোনেদের আঁচল ধরে, হাত ধরে টানা হয়। অভিযোগ করলে দিদি বলেন দুষ্টু ছেলে। এত দুষ্টু ছেলে এল কোথা থেকে? ওই দুষ্টু ছেলেরাই কাল কোচবিহারের শীতলকুচিতে গুলি খেয়েছে। এই দুষ্টু ছেলেরা বাংলায় থাকবে না।”
দিলীপ হুঁশিয়ারি দেন, “যারা ভেবেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী বন্দুকটা দেখোনার জন্য নিয়ে এসেছে, তারা বুঝে গিয়েছে ওই গুলির গরম কেমন। সারা বাংলায় এটা হবে।”

দিলীপের মন্তব্য ঘিরে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। অনেকেই এই মন্তব্যকে অসংবেদনশীল আখ্যা দিয়েছেন। তৃণমূলের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, গণহত্যায় প্ররোচনা দিচ্ছেন দিলীপ ঘোষ। এই পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষের বলেন, “শীতলকুচি একটা কলঙ্কজনক ঘটনা। বিজেপির চিত্রনাট্য মেনেই গোটাটা ঘটেছে। পক্ষপাতদুষ্ট নির্বাচন কমিশন চোখ কান বুজে আছে। আমার মনে করি দিলীপ ঘোষেই মন্তব্য আসলে গণহত্যার প্ররোচনা। অবলম্বে পদক্ষেপ করা উচিত কমিশনের।”

Related Articles