বিশেষ সংখ্যা

তথাকথিত শিক্ষিত মানুষ ভাঙছেন আইন, লকডাউনে পথ দেখাচ্ছেন আদিবাসীরা

✒️অরূপ মাহাত: করোনা ভাইরাসের গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে দেশে লকডাউন জারি করেছে সরকার। এই লকডাউনের মাধ্যমে করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা কমিয়ে আনার চেষ্টা করছে গোটা বিশ্ব। অন্যদিকে, শুধু বাজার করার আছিলায় আইন ভাঙছে মানুষ। এই লকডাউনকে অমান্য করার ফল যে কতটা মারাত্মক হতে পারে, তা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন জাপানের হোক্কাইডো দ্বীপের বাসিন্দারা। তাড়াহুড়ো করে লকডাউন তুলে নেওয়ার কারণে, এক সময় করোনা সংক্রমণ রুখে দিয়ে বিশ্বের দরবারে দৃষ্টান্ত গড়ে তোলা হোক্কাইডো দ্বীপে বর্তমানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

দেশ জুড়ে তথাকথিত শিক্ষিত, ভদ্রসমাজের মানুষেরা বিভিন্ন বাহানায় লকডাউনের বিধিনিষেধ অমান্য করে চলেছেন। লকডাউন কার্যকর করতে সক্রিয় পুলিশ কর্মীকে বোকা বানিয়ে অবাধে ঘুরে বেড়াতে বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করছেন। প্রথম থেকেই, উচ্চবিত্ত শ্রেণীর মানুষের গোঁয়ার্তুমি ও স্বাস্থ্যবিধিকে অমান্য করার কারণে দেশ আজ চরম সংকটে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে, শত অভাব অভিযোগের মধ্যেও সারা দেশ তথা বিশ্বকে পথ দেখাচ্ছেন আদিবাসী শ্রেণীর মানুষেরা। আদিবাসীদের কিছু প্রাচীন রীতিনীতি আজ এই করোনা সংকটের দিনে গোটা বিশ্বের বেঁচে থাকার উপায় হয়ে উঠেছে। আদিবাসী কোন পরিবারে বাইরে থেকে কেউ এলে তাকে ঘটিতে করে জল দেওয়া হয়। যা দিয়ে হাত-পা ধুয়ে তবেই বাড়িতে প্রবেশ করতে পারেন আগন্তুক ব্যক্তি। যা আজ গোটা বিশ্বের কাছে অবশ্য পালনীয় হয়ে উঠেছে।

লকডাউন কার্যকর করতেও পথ দেখাচ্ছে আদিবাসী এলাকাগুলো। আদিবাসী অধ্যুষিত পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিমাঞ্চলের জেলা বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম জেলায় এখনও ছড়িয়ে পড়েনি করোনা। সেই এলাকায় লকডাউনের প্রথম থেকেই একের পর এক গ্রাম বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘিরে দেয় গ্রামবাসীরা। পরবর্তীকালে একই পন্থা অবলম্বন করতে দেখা যায় শহুরে অঞ্চলের মানুষকেও। শুধু তাই নয়, করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক চেপে বসায় এবার কঠোর ভাবে লকডাউন কার্যকর করতে দেখা গেল আদিবাসী শ্রেণীর মানুষকে। অন্য কেউ যাতে বাড়িতে আসতে না পারে তার জন্য বাড়ির দরজায় ব্যারিকেড গড়লেন তারা। বাঁশের ঘেরায় আটকে দিলেন বাড়িতে আসা-যাওয়ার পথ। ঝাড়খণ্ডের আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকা দুমকায় এমনই ছবি দেখা গেছে। যেখানে করোনা সংক্রমণের অতি স্পর্শকাতর এলাকাতেও শিক্ষিত শহুরে মানুষকে বাড়িতে আটকে রাখতে ব্যর্থ হচ্ছে প্রশাসন, সেখানে বারবার দৃষ্টান্ত গড়ে তুলছেন তথাকথিত পিছিয়ে পড়া এলাকার আদিবাসীরাই।

Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close