বিজলীর ঝটকা বঙ্গে

বিজলীর ঝটকা বঙ্গে 1
11 February 2020, 1:13 pm, 665 Views

এ যেন ডালভাত আর বিরিয়ানির লড়াই। কেজরিওয়াল সরকারের সাফল্যের পরে, একই রাস্তায় হাঁটতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। ৭৫ ইউনিট অব্দি বিদ্যুৎ বিনামূল্যে পাবেন পশ্চিমবঙ্গের জনগন। 

 দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি জোর প্রচার করেছিল - বিনামূল্যে দেবার অর্থ হল, মানুষকে অলস বানানো। কিন্তু আপ দলের দাবি ছিল পরীক্ষার - কোনো বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে না। দিল্লির লোক কর দেয়, সেই করের টাকা দিল্লির লোককে ফেরৎ দেওয়া হচ্ছে বিদ্যুৎ আকারে। এবং দিল্লির লোক বিজেপির কথা বিশ্বাস করেনি, বরং করেছে আপ দলের কথা। তাই এক্সিট পোলের রিপোর্ট দেখার পরেই পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র বিনামূল্যে বিদ্যুৎ দেবার ঘোষণা করে দেন।

 ৭৫ ইউনিট বিদ্যুৎ, সাধারণ চোখে অনেক কম। কিন্তু এর মধ্যে দৈনিক ১০ ঘন্টা একটি পাখা ও দুটো দশ ওয়াটের বাল্ব নিশ্চিন্তে চালানো যায়। মানব উন্নয়ন সূচকে, মাথা পিছু বিদ্যুতের ব্যবহার হিসেবের মধ্যে থাকে। কারণ পরিশ্রুত জল, ভাল রাস্তার মতো বিদ্যুৎ একটা মৌলিক চাহিদা।
অবশ্যই এতে মধ্যবিত্তের কোনো লাভ হবে না। এখানেই প্রয়োজনীয়তা ও বিলাসের তুলনা চলে আসে। একজন গরিব পরিবারের এই বিদ্যুত চলে যাবার কথা। কিন্তু এর বেশি বিদ্যুৎ খরচ তখনই হতে পারে, যখন বাল্ব বা পাখার সংখ্যা বেশি হবে। যেটা ন্যূনতম প্রয়োজনীয়তার চেয়ে বেশি। মানুষ ভোট দিয়ে সরকার নির্বাচন করে, মানুষের কাজ করার জন্য। তাই ন্যূনতম চাহিদা পূরণ করা সরকারের একটা দায়বদ্ধতা। মাত্র ৭৫ ইউনিট বিদ্যুৎ বিনামূল্যে দিয়ে সরকার কাউকে অলস করতে পারে না। আলস্যের সাথে বিলাস আসে। তখন বিদ্যুৎ খরচ বেড়ে যাবে, এবং পকেট থেকে টাকা লাগবে। 
বিনামূল্যে/সস্তায় বিদ্যুৎ দেওয়া ভারতে নতুন কিছু না। কেজরিওয়াল সরকারের অনেক আগেই তামিলনাড়ুর সরকার ১০০ ইউনিট অব্দি বিদ্যুৎ বিনামূল্যে সরবরাহ করে থাকে। তবে সেটা এভাবে নির্বাচনের বিষয় হয়ে ওঠেনি কোনোদিন। তাছাড়া মিডিয়া কবেই বা উত্তরভারত ছাড়া অবশিষ্ট ভারতের কথা প্রচার করে। তাই, তামিলনাড়ুর সরকার যেমন এতদিন ধরে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ দিয়ে দেউলিয়া হয়ে যায়নি, তেমনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এমন হবার সম্ভাবনা নেই। ৭৫ ইউনিট বিনামূল্যে বিদ্যুৎ দেবার পরে, যে ন্যূনতম হারে দাম নেওয়া হয়, সেটা তামিলনাড়ুর সর্বোচ্চ হারের সমান। সেজন্য, ভবিষ্যতে নিম্নমধ্যবিত্তের বিদ্যুত কম দামে পাওয়ার অবকাশ থাকছে।

Leave a Comment.