রাজ্য

কালনায় রক্তদান থেকে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে সাহায্য কিংবা সরাসরি খাদ্য সামগ্রী বিতরণ,মানুষের পাশে অশোক রুদ্রের নেতৃত্বে তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি

করোনা লকডাউনে বিদ্যালয়গুলো ছুটি হলেও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকাদের তাদের মানবিক দায়িত্ব পালনে ত্রুটি রাখছেন না। পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি অশোক রুদ্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ও শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জীর ডাকে সাড়া দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে করোনা মোকাবিলায় লড়াই করছে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে। ডুয়ার্সের নক্সালবাড়ি থেকে জঙ্গলমহলের গোয়ালতোড় কিংবা বর্ধমানের কালনা থেকে আলিপুরদুয়ার সর্বত্রই মাঠে থেকে সাহায্য করছে তৃনমুল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির শিক্ষক শিক্ষিকারা। তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সভাপতি ও যুব তৃনমুল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অশোক রুদ্র জানান, মুখ্যমন্ত্রীর এমারজেন্সি ত্রাণ তহবিলে তাদের সংগঠন প্রায় তিন কোটি টাকা তুলে দিয়েছে ও এখন সাহায্য চলছে। এছাড়াও লক্ষাধিক মানুষের কাছে সারা রাজ্যে তার সংগঠনের শিক্ষক শিক্ষিকারা খাদ্য সামগ্রী তুলে দিচ্ছেন। আজ বর্ধমানের কালনা থেকে রক্তদান শিবির শুরু হলো প্রাথমিক শিক্ষকদের।

পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনা হাসপাতালে রক্তের সংকট দেখা দিলে আপদকালীন চাহিদা মেটাতে উদ্যোগী হয় তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনাতে আজ ২৮ জন প্রাথমিক শিক্ষক রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ সহ শিক্ষক সমিতির নেতৃত্বের উপস্থিতিতে রক্তদান করেন, বলে জেলা সভাপতি তপন পোড়েল জানান। দার্জিলিং এর শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলার সভাপতি বিভাস চক্রবর্তী র নেতৃত্বে ও জেলা কমিটির উপস্থিতিতে আজ নক্সালবাড়ি এলাকায় তিনশ পরিবারের মধ্যে ত্রান সামগ্রী দেওয়া হয়। আলিপুরদুয়ারে প্রায় দেড়শটি পরিবারকে জেলা সভাপতি কৌশিক সরকার সহ জেলা নেতৃত্ব ও রাজ্য নেতৃত্ব মৌমিতা অধিকারী, দীপংকর বিশ্বাস এর উপস্থিতিতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।

রাজ্য সভাপতি অশোক রুদ্র সমস্ত শিক্ষক নেতৃত্ব ও শিক্ষক শিক্ষিকাদের ধন্যবাদ জানান ও মা মাটি মানুষের সরকারের নেত্রী মমতা ব্যানার্জীর পাশে থেকে এই মহামারীকে প্রতিরোধ করার আহ্বান জানান।


Tags
Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Close