প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
রাজনীতিরাজ্য

“বাম-কংগ্রেস জোট অনেক হিসেব উলটে দেবে, অতিমারি প্রাসঙ্গিকতা ফিরিয়েছে বামেদের”, দাবি মহম্মদ সেলিমের

GNE NEWS DESK: ২০১১ সালে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেওয়ার পর থেকে বামেদের নির্বাচনী রক্তক্ষরণ অব্যাহত। বিগত লোকসভা ভোটে বামেদের ভোট ব্যাঙ্ক অনেক ক্ষেত্রে কার্যত নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। সেই পরিস্থিতির মধ্যেও আগামী বিধানসভা ভোটে বাম-কংগ্রেস জোট অনেক হিসাব উল্টে দেবে, এমনটা দাবি করলেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম।

বেশির ভাগ রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে আসন্ন বিধানসভা ভোট কার্যত বিজেপি ও তৃণমূলের টক্কর হতে চলেছে। কিন্তু জনপ্রিয় একটি ইংরেজি দৈনিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সেলিম দাবি করলেন, রাজ্যের ২৩ জেলার অন্তত ৭ টিতে জোটের সঙ্গে সরাসরি লড়াই বিজেপি অথবা তৃণমূলের। সিপিএমের পলিটবুরো সদস্যের দাবি, করোনা অতিমারি বাংলায় বামেদের ফের প্রাসঙ্গিক করে তুলেছে।

সেলিম বলেন, “আজ বাংলার মানুষ বলছেন তৃণমূল আমলে অবস্থা খারাপ হয়েছে, বিশেষ করে রাজনৈতিক হিংসার ক্ষেত্রে। বিধানসভা ভোট শুধু মাত্র হিন্দু-মুসলিম বা বাঙালি-অবাঙালি ইস্যুতে লড়া হবে না। মনে রাখতে হবে অতিমারির জেরে স্বাস্থ্য পরিকাঠামো নিয়ে গুরুতর প্রশ্ন মানুষের মনে উদয় হতে শুরু করেছে।”

বিধানসভা ভোট প্রসঙ্গে সেলিমের পর্যবেক্ষণ, বাংলায় প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার কারণে তৃণমূলের পক্ষে তৃতীয়বার জেতা সম্ভব হবে না। অন্যদিকে বিজেপির পক্ষে একা বাংলা জয় অসম্ভব।  অর্থাৎ বাংলায় এবার ত্রিমুখী লড়াই হবে।

এআইএমআইএম এর প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে তিনি বলেন, বাংলার মুসলিম সমাজ দুটো পার্টিশনের সাক্ষী। তারা ধর্মনিরপেক্ষ দলকেই সমর্থন করবেন।
সিএএ এনআরসি নিয়ে সিপিএম নেতার বক্তব্য, বিজেপি ও তৃণমূল যে একই পথের পথিক তা মানুষের কাছে পরিষ্কার। দিল্লি বা মহারাষ্ট্রে যেভাবে প্রতিবাদী বা সমাজকর্মীদের রাষ্ট্রীয় হেনস্থার মুখে পড়তে হচ্ছে একই পরিস্থিতি বাংলাতেও।

কোভিড পরিস্থিতিতে লকডাউনে বাম দলগুলির কাজ প্রসঙ্গেও বলেন প্রাক্তন সাংসদ। তাঁর মতে, আমাদের প্রজন্ম একটি মহামারির মুখোমুখি। এই পরিস্থিতিতে লকডাউন সত্ত্বেও যেভাবে ছাত্র-যুবরা পথে নেমেছেন। যেভাবে শ্রমজীবী ক্যান্টিনের মাধ্যমে অভুক্তদের দু’বেলা খাবার তুলে দিয়েছেন, প্রান্তিক শিশুদের অনলাইন ক্লাসে অংশ নেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন বা নিজের মোবাইল থেকে আটকে পড়া মানুষদের বাড়িতে কথা বলানোর উদ্যোগ সফলভাবে সম্পন্ন করেছেন তা কিন্তু মানুষ নিজের চোখে দেখেছেন। 
মহম্মদ সেলিম বলছেন, এই মুহূর্তে রাজ্যে ক্ষমতায় থাকা তৃণমূল বা কেন্দ্রের শাসক বিজেপির থেকেও বেশি যুব কর্মী বামেদের সঙ্গে। কারণ একটাই, পথে নেমে কাজ করার সুযোগ এবং মানুষের পাশে নিঃস্বার্থ ভাবে দাঁড়ানোর ব্যাপারে আজও বামপন্থীদের বিকল্প নেই। 

মহম্মদ সেলিমের আরও দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি ও আরএসএসকে বাংলায় ডেকে এনেছেন। অথচ ৩৪ বছর ক্ষমতায় থেকেও আরএসএস ও মুসলিম লিগকে বাংলায় ঢুকতে দেওয়া হয়নি। তাই হিন্দু বা মুসলিম মৌলবাদীদের প্রধান শত্রু বামপন্থীরা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাৎক্ষনিক রাজনৈতিক লাভের আশায় ওদের জায়গা দিয়েছেন।

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel