প্রথম পাতা করোনা আপডেট আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
রাজ্যভোটযুদ্ধরাজনীতি

৪ জন থেকে ৫ জন মন্ত্রী হতে পারেন দুই মেদিনীপুর-ঝাড়গ্রাম থেকে, রাজনৈতিক মহলে জল্পনা

GNE NEWS DESK: মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের বেশির ভাগ বিধানসভা আসন গুলিতে ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের বিচারে এগিয়ে ছিল বিজেপি। কিন্তু বিধানসভা ভোটে সমস্ত বিশ্লেষণ উল্টে দিয়ে প্রায় একাধিপত্য স্থাপন করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। মেদিনীপুরের এই আশাতীত সাফল্য পুরস্কারের পর্যবসিত হয়ে মমতার মন্ত্রীসভায় একাধিক আসন পেতে পারে। রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন তেমনই।

শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেসে থাকা কালীন দুই মেদিনীপুরের তৃণমূলের একাধিপত্য ছিল। কিন্তু লোকসভা ভোট ও শুভেন্দুর বিজেপিতে যোগদানের পরে সেই টানে ভাটা পড়েছে বলে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে সব হিসাব উল্টে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাতে তৃণমূল কংগ্রেস আসন পেয়েছে ১৫ টির মধ্যে ১৩ টি। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ১৬ টা আসনের ৯ টি পেয়েছে তৃণমূল। এবং ঝাড়গ্রামে ৪ টি আসন তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে।

পূর্ব মেদিনীপুরে লড়াই সবচেয়ে কঠিন ছিল তৃণমূলের। কিন্তু সেখানে শুভেন্দুর সঙ্গে টক্কর দিয়েছেন তমলুকের বিধায়ক সৌমেন মহাপাত্র এবং রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরি। ফলে দুই জনই পুরস্কার স্বরূপ মন্ত্রিত্ব পেতে পারেন বলে ধারণা রাজনৈতিক মহলের। দীর্ঘ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন বহু বারের বিধায়ক সবংয়ের ভুমিপূত্র মানস রঞ্জন ভুঁইয়াও এবার মন্ত্রী হতে চলেছেন বলে সুত্রের খবর।

GNE

মন্ত্রীত্ব পেতে পারেন প্রাক্তন আই পি এস তথা ডেবরা বিধানসভার বিধায়ক হুমায়ুন কবীর। তাঁর প্রশাসক হিসেবে দীর্ঘ প্রশাসনিক অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চাইবে তৃণমূল। তেমনি মন্ত্রীত্বের প্রশ্নে আলোচনায় এসেছে ঝাড়গ্রামের বিধায়কা বীরবাহা হাঁসদার নাম। তিনি জঙ্গলমহল ও আদিবাসী সমাজের তরুণ প্রতিনিধি। সেই হিসাবে মন্ত্রীসভায় তাঁর অন্তর্ভুক্তির বিশেষ সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related Articles

x