অর্থ সংকটে রাজ্য, শিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীদের হাতে নেই কাজ,অথচ উন্নয়নের বিজ্ঞাপনে বিপুল খরচ রাজ্য সরকারের

In the financial crisis, the state, educated unemployed young women do not have jobs, while the state government spends huge amount on development advertisements.

GNE NEWS DESK: অর্থসংকটের কারণে কোনো নতুন পদে প্রার্থী নিয়োগ হচ্ছেনা। কিন্তু ভোট এর উন্নয়নের প্রচারে বেশ তৎপর হয়ে উঠেছে রাজ্য। ভোটের দামাদা বাজতেই বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিল রাজ্য সরকার। করোনা পরিস্থিতিতে ৩০ শে সেপ্টেম্বর অব্দি অর্থ দফতর যে কোন নতুন নিয়োগের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করে রেখেছে। ইতিমধ্যেই অনেক অস্থায়ী কর্মীর বেতন বন্ধ । তখনই আসন্ন নির্বাচনের জন্য বিশাল অঙ্কের বাজেটের তালিকা ফেলেছে রাজ্য সরকার। এদিকে তারা চাকরি দিতে পারছেন না অন্য দিকে এত বড় বাজেট? আদৌ টাকা নেই কি সরকারের কাছে? প্রশ্ন উঠে আসছে।

সরকারি টাকায় বিজ্ঞাপনের জন্য কোটি কোটি টাকায় মমতা সরকারের উন্নয়নের বিজ্ঞাপন করার জন্যে ঠিকাদার সংস্থা গুলির সাথে চুক্তি হয়েছে। চলতি বছরের জুলাই-আগস্ট থেকে ঠিকাদার সংস্থাগুলির সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে এক বছরের জন্য। সরকারি টাকায় অটো ,টোটো ভাড়া করা হচ্ছে প্রচারের জন্য পাহাড় থেকে জঙ্গলমহল সর্বত্রই। হুগলি বর্ধমান প্রভৃতি জায়গাই সামনের মাসের মধ্যেই হোর্ডিং লাগানোর কাজ শেষ করার কথা উঠে এসেছে।

পাশাপাশি, ই রিকসা, টোটো বা অটোতে চলবে মাইকিং। দিনে ৫০ থেকে ৭০ অন্তত কিমি চলবে এক একটি ই রিকসা, টোটো বা অটো এমনই শর্ত রাখছে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর। উল্লেখ্য, এই তথ্য সঙ্কৃতি দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিবরা প্রচার বা বিজ্ঞাপনের জন্য ৩০ লক্ষ টাকা একবারে খরচ করার অনুমতি পান। কিন্তু চলতি বছরে সেই পরিমাণ এখন ২ কোটি টাকা। এখন প্রশ্ন আসছে এত টাকা যদি ভোটের জন্য খরচ করছেন সরকার তাহলে কেন বলছেন যে আর্থিক সংকটের জন্য বন্ধ নিয়োগ ব্যবস্থা? নাকি বিরোধী দলের কথায় সত্যি? ইচ্ছা করেই রাজ্য সরকার চাইছেন না নতুন প্রার্থী নিয়োগ করতে? প্রশ্ন অনেক। এখনো রাজ্যের তরফ থেকে একটারও উত্তর মেলেনি।
[qws]Tags:অর্থ সংকটে রাজ্য, শিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীদের হাতে নেই কাজ

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel