প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলাভোটযুদ্ধ

‘লম্ফঝম্প বন্ধ করুন’, হলদিয়ার চৈতন্যপুরে নির্বাচনী সভায় হুঁশিয়ারি শুভেন্দু অধিকারীর

GNE NEWS DESK: সামনে রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। রাজ্য জুড়ে প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচার পুরো দমে চলছে। শুরু হয়েছে একে অপরকে কটাক্ষ ও পাল্টা কটাক্ষের পরম্পরা। তারই মধ্যে হলদিয়ার চৈতন্যপুরের নির্বাচনী সভা থেকে তৃণমূলের উদ্দেশ্যে আক্রমণ শানালেন শুভেন্দু অধিকারী।

তৃণমূলের উদ্দেশ্যে কটাক্ষ করে শুভেন্দু বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেস রাজনৈতিক দলটা এখন প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে। যার চেয়ারম্যান মমতা ব্যানার্জি ম্যানেজিং ডিরেক্টর হলেন তোলাবাজ ভাইপো।” তিনি আরও বলেন, “আমাকে কেউ তাড়িয়ে দেয়নি আমি রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করে ছিলাম।বর্তমানে কিছু নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর লোকেরা আমার পোস্টার ছিড়ে দিচ্ছে কালি লাগিয়ে দিচ্ছে। তবে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ পরিবর্তন হবে ঠিক করে ফেলেছেন। তোষনের রাজনীতি করে এই সরকার পশ্চিমবঙ্গকে পিছিয়ে দিয়েছে। কেন্দ্রের স্কিমগুলি নাম বদল করা ছাড়া তৃণমূল সরকার কোনো কাজ করেনি। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড ঢপের চপ।”
রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্পকেও কটাক্ষ করেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর বক্তব্য, “দুয়ারের সরকার এখন দুয়ারে সিবিআই। ৫০০ কোটি টাকা দিয়ে বুদ্ধি কিনেছে মাননীয়া। পশ্চিমবঙ্গকে যদি বাঁচাতে হয় বিজেপিকে আনতেই হবে।” তৃণমূল নেতারা বিজেপিকে বহিরাগত তকমা দিয়ে আক্রমণ করছেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে শুভেন্দুর বক্তব্য, “রোহিঙ্গাদের জামাই আদর করা হয় প্রধানমন্ত্রীকে বহিরাগত বলা হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যদি বহিরাগত হন তাহলে নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বহিরাগত ওনার কথা অনুযায়ী।”

শুভেন্দু বলেন, “মাননীয়া চার লক্ষ ৬০ হাজার কোটি টাকার ঋণ করেছেন বাংলায়। সাড়ে ৯ বছর বাংলায় কোন ভারী শিল্প নেই, বন্দর হয়নি।” এরপরেই তাঁর হুঁশিয়ারি, “এবার ভোট লুঠ হবে না। কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। এখন যারা লম্ফঝম্প করছেন বন্ধ করুন। ২ তারিখের পর আসতে হবে আমার কাছে, সেই সৌজন্যতা যাতে রাখা যায় চেষ্টা করুন।”

একই রকমের খবর