বিদ্যাদেবী সরস্বতীর পূজা কেন করা হয়?

বিদ্যাদেবী সরস্বতীর পূজা কেন করা হয়? 1
28 January 2020, 11:07 pm, 589 Views

বিদ্যাদেবী সরস্বতীর পূজা কেন
করা হয়?

মাঘ মাসের শুক্লপক্ষের
পঞ্চমী তিথি শ্রী সরস্বতী মায়ের
পুজার দিন।সরস্বতী শব্দটির বুৎপত্তিগত
অর্থে সরস্+বতু স্ত্রী লিঙ্গে ঈ প্রত্যয় যুক্ত
যোগে সরস্বতী । সতত রসে সমৃদ্ধা।
তিনি শুক্লর্বণা, শুভ্র হংসবাহনা,বীণা-র
ঞ্জিত পুস্তুক হস্তে।অর্থাৎ এক
হাতে বীণা ও অন্য হাতে পুস্তুক।
সেগুলোর গূঢ রহস্য তথা যথার্থ তাৎপর্য
হৃদয়ে ধারণ
করে মাকে পূজার্চনা যথার্থতা লাভ
করবে।নয়তো পূজার অাড়ম্বরতা যতই হোক
না কেন তা অর্থ হীন।

আসুন এ বার
জেনেনি শিক্ষার্থীরা দেবী সরস্বতী পূঁজা কেন করে???
মানুষ জ্ঞানের পিপাশু সর্বদা জ্ঞানের
সন্ধান করে।শ্রদ্ধা বান ব্যক্তি জ্ঞান
লাভ করে থাকেন। শ্রদ্ধাবোধ
গড়ে তোলার জন্য পারিবারিক
শিক্ষা অতীব গুরুত্বপূর্ণ। (শ্রীগীতা ৪/৩৯)।
বাল্যকাল থেকেই ধর্মীয় আচার আচরণের
শিক্ষা দেয়া প্রয়োজন। সনাতন
ধর্মাবলম্বী গণ ছোটদের কে ধর্মীয়
চেতনা দান করার জন্য
শ্রীসরস্বতী পূজা অন্যতম একটি উৎসব্।

এবার জেনেনি দেবী সরস্বতীর বাহন
হংস কেন???

জ্ঞানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতীর
বাহন শ্বেতহংস। হাঁস
অসারকে ফেলে সার গ্রহণ করে।দুধ ও জল
মিশ্রণ করে দিলে হাঁস জল ফেলে শুধু
দুধটুকু গ্রহণ করে নেয়।কিংবা কাঁদায়
মিশ্রিত স্থান থেকে ও তার খাদ্য
খুঁজে নিতে পারে। মায়ের
সাথে পূজিত হয়ে শিক্ষা দিচ্ছে –
সকলে অসার বা ভেজাল অকল্যাণকর
পরিহার করে সার বা ভাল কিছু অর্থাৎ
নিত্য পরমাত্মাকে গ্রহণ করেন
এবং পারমার্থিক জ্ঞান অর্জন করে সুন্দর
পথে চলতে পারি।

দেবীর হাতে বীনা কেন??
জীবন ছন্দময়। বীণার
ঝংকারে উঠে আসে ধ্বনি বা নাদ।
বিদ্যাদেবী সরস্বতীর ভক্তগণ সাধনার
দ্বারা সিদ্ধি লাভ করলে বীণার
ধ্বনি শুনতে পান। বীণার সুর মধুর।
পূজার্থী বা বিদ্যার্থীর মুখ নিঃসৃত
বাক্যও যেন মধুর হয় এবং জীবন ও মধুর
সঙ্গীতময় হয় এ কারণেই মায়ের
হাতে বীণা।

দেবী র হাতে পুস্তুক কেন?
বিদ্যার্থীর লক্ষ্য জ্ঞান অঞ্জন করা।আর
সেই জ্ঞান ও বিদ্যা অঞ্জনের জন্য
জ্ঞানের ভান্ডার ‘বেদ’ তার হাতে।
বেদই বিদ্যা। তিনি আমাদের
কে অার্শিবাদ করেছেন জীবনকে শুভ্র ও
পবিত্র রাখ।সত্য কে আঁকড়ে রাখ। মূল
গ্রন্থের বাণী পালন কর।জীবন ছন্দময় কর।স্বচ্ছন্দে থাক।

Leave a Comment.