৯০ বছরের বৃদ্ধা মাকে বাড়িতে তালাবন্ধ রেখে বউয়ের সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিলেন কুলাঙ্গার ছেলে , তার পর কি হল দেখুন

27 January 2020, 5:10 pm, 845 Views

উত্তর প্রদেশের আলীগড়ে এক কলিযুগের ছেলে নিজের ঘরে ৯০ বছরের বৃদ্ধা মাকে বন্ধ করে দেওয়ার একটি ঘটনা সামনে এসেছে। ১০ দিন পরে, যখন কন্যা একটি ভয়ঙ্কর স্বপ্ন দেখেছিল, ভয় পেয়ে যাওয়া মেয়েটি বাড়িতে পৌঁছেছিল। তালা ভেঙে কন্যা প্রতিবেশীদের সহায়তায় মাকে দেখেন তখন মায়ের অবস্থা দেখে নির্বাক হয়ে যাওয়া মেয়ে তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। ঘটনাটি কোতোয়ালি শহরের মহল্লা শের খানের।

এই ঘটনার একটি ভিডিওও উঠে এসেছে। তথ্য মতে, মহল্লা শের খানের বাসিন্দা ৯০ বছর বয়সী আসগরী তার ছেলে জালালউদ্দিনের সাথে থাকতেন। জালালউদ্দিন তার বৃদ্ধা মাকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখেছিলেন এবং পরিবারের সাথে মজা করতে বেরিয়েছিলেন। তার বৃদ্ধা মা ১০ দিন ধরে বাড়িতে ক্ষুধার্ত ও তৃষ্ণার্ত থাকলেন। আসগরীর কন্যার একটি ভীতিজনক স্বপ্ন দেখেছিল এবং তার মায়ের কথা মনে করে মায়ের সাথে দেখা করতে বাড়িতে পৌঁছেছিল। মেয়েটি বাড়িতে পৌঁছে দেখে বাড়িতে তালা দেওয়া আছে।

তিনি পাড়ার লোকদের কাছ থেকে জানতে পেরেছিলেন যে ১০ দিন আগে জালালউদ্দিন তার স্ত্রী ও কন্যাদের সাথে বাইরে গিয়েছিলেন, কিন্তু মাকে যেতে দেখা যায়নি। তখন মেয়েটি তার মাকে নিয়ে চিন্তিত হয়ে প্রতিবেশীদের সহায়তায় দরজার তালা ভেঙেছিল। তালা ভেঙে বাড়িতে পৌঁছামাত্রই বৃদ্ধার অবস্থা দেখে সবার চোখে জল বেরিয়ে গেল। কান্নায় ফেটে পড়লেন কন্যা। খিদার জ্বালায় ছটপট করছিলেন ওই বৃদ্ধা যা দেখে তার মেয়ে কাঁদতে লাগলেন। প্রতিবেশীরা ওই বৃদ্ধাকে খাওয়ান এবং তারপরে সে কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে গেল। মেয়েটি এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছে। পুলিশ কন্যার অভিযোগে জালালউদ্দিন, তার স্ত্রী আতিকা আঞ্জুম ও তার মেয়ে সায়মা ও সানা জামালের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা করেছে।

Leave a Comment.