বাজপেয়ীর পথ ধরেই হাঁটছেন নরেন্দ্র মোদী তবে কিছুটা অন্য ভূমিকায়

Narendra Modi is following in Vajpayee’s footsteps, but in a slightly different role

GNE NEWS DESK: ১৯৮৪ সালে ২টি আসন থেকে ১৯৯৬ সালে কেন্দ্রে সরকার গড়া। ১৯৯৬ সালে প্রায় ৭ কোটি ভোট থেকে ১৯৯৮ সালে প্রায় সাড়ে ৯ কোটি ভোট পেয়ে পাঁচ বছরের জন্য প্রথম অ-কংগ্রেসী সরকার চালানোর কৃতিত্ব অটলবিহারী বাজপেয়ীর ছিল। আসলে নরেন্দ্র মোদীর ব্যক্তিগত ‘নিরাপত্তাহীনতা’ ও দিল্লির সংসদীয় রাজনীতির অনভিজ্ঞতাই তাঁকে পিছিয়ে দেয় অটলবিহারী বাজপেয়ীর থেকে। কিন্তু এবারে অন্য ভূমিকায় বাজপেয়ীর পথপ্রদর্শক হতে চাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী খমতাকালীন সময়ে প্রথমে রসিকতার সুরে বলেছিলেন, ‘এমন ভাবে রামমন্দির, ৩৭০ রদ, অভিন্ন দেওয়ানি বিধির উল্লেখ নেই বলে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে, যেন এতে খুব দুঃখ হয়েছে। কিন্তু এ সবের জন্যই তো এত দিন আমাদের সমালোচনা হয়েছে। রামমন্দির তৈরি করতে চাই বলে আমাদের দোষী ঠাওরানো হয়েছে। ৩৭০ রদ করতে চাই বলে প্রশ্ন তোলা হয়েছে, দেশের ঐক্য কী ভাবে রক্ষা করব! সংবিধানে অভিন্ন দেওয়ানি বিধির কথা বলা হয়েছে। কিন্তু আমরা বললেই অভিযোগ উঠেছে, দেশের ঐক্য নষ্ট করছি।’

তবে অযোধ্যায় ৫ অগস্ট প্রধানমন্ত্রী রামমন্দিরের শিলান্যাসের মধ্য দিয়েই নরেন্দ্র মোদি ভারতবাসীর অনেকটা কাছে আসার পথে পায়। আত্মত্যাগের মধ্যে দিয়ে ‘এক ভারত, শ্রেষ্ঠ ভারত’ হবে বলেও মানেন তিনি। অযোধ্যায় দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী রাম-রাজ্যের স্বপ্ন দেখিয়ে তাই বলেছিলেন, স্বাধীনতা আন্দোলনের মতোই রামমন্দির আন্দোলনে দেশের বহু মানুষ দীর্ঘ সময় আত্মত্যাগ করেছেন। রামমন্দিরের শিলান্যাস সেই আত্মত্যাগেরই পরিণতি বলে শিকার করেন তিনি।

এদিকে বাজপেয়ীর সহযোগী, মন্ত্রিসভা ও দলের সহকর্মী, এমনকী বিরোধী দলগুলির নেতাদের সবাই এক বাক্যে স্বীকার করেন, বিরোধীদের আলোচনার টেবিলে বসানোর আশ্চর্য ক্ষমতা ছিল প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর। তাঁর রাজনীতি ‘ক্ষমতাকেন্দ্রিক’ ছিল না। তাঁর রাজনীতি ছিল ‘মানুষ-কেন্দ্রিক’। আর সেই পথ ধরেই আগামী রাজনীতিতে নিজের স্থান বজায় রাখতে হাঁটতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী তবে এ এক অন্যভূমিকায় বলা যেতে পারে।
[qws]Tags:বাজপেয়ির পথ ধরেই হাঁটছেন নরেন্দ্র মোদী

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel