জঙ্গলমহলে মাওবাদী আনাগোনা, কাশ্মীর থেকে ফিরছে বাহিনী

Paramilitary forces to be again in Junglemahal

GNE NEWS DESK: জঙ্গলমহলের(Jungle Mahal) আতঙ্ক এখনো কাটেনি। তারেই মাঝে মাওবাদী আনাগোনা বেড়েছে জঙ্গলমহলে। কেন্দ্রের দাবি এখন সেই প্রভাব অনেক টাই কম গিয়েছে। জঙ্গলমহলে ফিরেছে শান্তি। গোয়েন্দাদের দাবি জঙ্গলমহলে আবার আনাগোনা বাড়তে শুরু করেছে মাওবাদীদের। স্বাধীনতা দিবসের আগের দিন রাতের অন্ধকারে ঝাড়গ্রাম(Jhargram) জেলার বেলপাহাড়ি এলাকায় বেশ কিছু পোস্টার পড়ে মাওবাদীদের।গোয়েন্দাদের দাবি ওই দিন রাতে মাওবাদীদের(Maoist) একটি দল ওই এলাকায় বৈঠক করে।

জঙ্গলমহলে মাওবাদীদের অস্তিত্ব কমে গিয়েছে এই অজুহাত দেখিয়ে এক বছর আগে ৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী তুলে নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। সেই বাহিনী ফেরত পাচ্ছে রাজ্য। ইতিমধ্যে এক কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী তুলে নেওয়ার কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। বাহিনী না তোলার দাবি জানিয়ে চিঠি লিখেছে রাজ্য সরকার। তার জবাব এখনো এসে পৌঁছায়নি। তবে এক বছর আগের প্রত্যাহার করে নেওয়া পাঁচ কোম্পানি বাহিনী ফেরত পাচ্ছে রাজ্য, এমনটাই জানা গেছে।

এই মুহূর্তে পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া ও বাঁকুড়া মিলে সমগ্র জঙ্গলমহলে মোট ২৩ কোম্পানি বাহিনী রয়েছে।তার সঙ্গে আরও পাঁচ কোম্পানি যোগ হতে চলেছে।

গোয়েন্দাদের দাবি মাওবাদীদের আনাগোনা নিশ্চিত ভাবে বেড়ে গেছে। গত ১৫ ই আগস্ট এর আগেই ২০-২৫ জনের একটি দল ঝাড়খন্ড থেকে এসেছে। ওই দলটি ৪-৫ টি ভাগে ভাগ হয়ে কাজ করছে ঝাড়খন্ড লাগোয়া সীমান্তবর্তী এলাকায়। স্বাধীনতা দিবসের দিন কালো পতাকা তুলার ঢাক দিয়ে দেওয়ালে পোস্টারিং করে ছিল।

গোয়েন্দা সূত্রের খবর টংভেদা, শাঁখাভাঙা, পচাপানি, বাঁকশোল, চড়কপাহাড়ি-সহ বেশ কিছু গ্রামে রাতের অন্ধকারে মাওবাদীদের আনাগোনা বেড়েছে। রাত ভর গ্রামে কাটিয়ে ফিরে যাচ্ছে ঝাড়খন্ডে।

[qws]Tags: Maoist, Jungle Mahal, CRPF

Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel