প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
রাজ্যরাজনীতি

তৃণমূলের সাফল্য খতিয়ান ! দুয়ারে সরকার এবং স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প নিয়ে সরকারের সাফল্য তুলে ধরলেন মমতা

Trinamool success record! At the door, Mamata highlighted the government's success with the health and health projects

GNE NEWS DESK: ‘দুয়ারে সরকার’ ও ‘পাড়ায় সমাধান’ প্রকল্পের সাফল্যের খতিয়ান নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার নবান্নে স্থানীয়, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক মহলের উপস্থিতিতে ‘দুয়ারে সরকার’ ও ‘পাড়ায় সমাধান’ প্রকল্পের সাফল্য তুলে ধরার এই অনুষ্ঠানে প্রশাসনিক আধিকারিকদের আরও মানবিক হওয়ার আর্জি জানিয়েছেন মমতা।

কর্মসূচি প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “হঠাৎ করে নয়। ভোটের মুখেও নয়। তৃণমূল স্তরে অন্তত ৫০০টি প্রশাসনিক বৈঠকের পর এই পরিকল্পনা করা হয়েছে। আমরা রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে প্রথম থেকেই প্রশাসনিক বৈঠক করে মানুষের সমস্যার সমাধান করেছি। এখন সরকার পৌঁছচ্ছে মানুষের দরজায় দরজায়।”

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, নবান্নের সভাঘরে মাটির দেওয়াল, খড়ের চালা ও তুলসিমঞ্চ সম্বলিত একটি ঘরের সামনে বসে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠানের শুরুতে রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে-আসা কয়েকজনের হাতে পরিষেবা তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী।

দুয়ারে সরকার কর্মসূচির ১২টি প্রকল্পের মধ্যে বেশি মানুষ নাম নথিভুক্ত করিয়েছেন স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে। এই প্রকল্পে প্রত্যেক পরিবারের জন্য ৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবিমা করিয়ে দিচ্ছে রাজ্য সরকার।
স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পর সমর্থনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “সকলের জন্য বিনা ব্যয়ে স্বাস্থ্য পরিষেবার সুবিধার জন্যই এই প্রকল্প। আমি চাই, রাজ্যএর ১০ কোটি মানুষ স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সুবিধা নিন।”
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কেন্দ্রের যে স্বাস্থ্যবিমার প্রকল্প (আয়ূষ্মান ভারত) তাতে রাজ্য সরকারকে ৪০ শতাংশ প্রিমিয়াম দিতে হয়। কেন্দ্র দেয় ৬০ শতাংশ। সেই বিমাও সবাইকে দেওয়া হয় না। কিন্তু আমরা রাজ্যের সবাইকেই বিনা পয়সায় স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড করিয়ে দিচ্ছি।”

গত ১ ডিসেম্বর থেকে ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচিতে পাড়ায় পাড়ায় ক্যাম্প করে স্বাস্থ্যসাথী, খাদ্যসাথী, জাতি শংসাপত্রের মতো রাজ্য সরকারের মোট ১২টি প্রকল্পে সাধারণ মানুষের নাম নথিভুক্ত করছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা। রাজ্যের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পাঁচ দফার এই কর্মসূচিতে এখনও পর্যন্ত মোট ২ কোটি ৫৫ লক্ষ মানুষ নাম নথিভুক্ত করিয়েছেন। তার মধ্যে প্রায় ৭৭ শতাংশ উপভোক্তার হাতেই পরিষেবা তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, “আগে তো গ্রামের লোকদের এখানে ডেকে আনা হত। কিন্তু আমরাই প্রথম গ্রামের মানুষএর কাছএ গিয়েছি। প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে রাজ্যের কোণায় কোণায় পরিষেবা প্রদানের বৈঠক করেছি।”

Advertisement with GNE Bangla

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel