প্রথম পাতা ভোট বাংলা আজকের রাশিফল সকালের বাংলা কর্ম সন্ধান পশ্চিম বাংলা বাংলার জেলা ভারতবর্ষ বিশ্ব বাংলা খেল বাংলা প্রযুক্তি বাংলা বিনোদন বাংলা        লাইফস্টাইল বাংলা EXCLUSIVE বাংলা GNE TV
জেলা

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কুড়মি সমাজের বৈঠক ফলপ্রসূ হল

ঝাড়গ্রাম : “দিয়াকে দিয়া, নাই দিয়াকে হুড়কা দিয়া” কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের এই কর্মসূচি সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাহার করে নিল কুড়মি সমন্বয় মঞ্চ । রাজ্য সরকারের আশ্বাস মত মঙ্গলবার ঝাড়গ্রামে সভাশেষে প্রকৃতিক পর্যটন কেন্দ্রে কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতাদের সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে রাজ্যের শিক্ষা মন্ত্রী তথা তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় । বৈঠক শেষে কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতা রাজেশ মাহাতো বলেন , “দিয়াকে দিয়া , নাই দিয়াকে হুড়কা দিয়া ” যে কর্মসূচি ৭ই ডিসেম্বর শুরু হয়েছিল ১২ই ডিসেম্বর শেষ হয়েছিল । তার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য সরকার আমাদের সাথে আলোচনার আশ্বাস দিলে আমরা এই কর্মসূচির সাময়িক বিরতি ঘোষণা করি । আজকে মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী আমাদের সাথে আলোচনায় বসে ছিলেন এবং কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের সাথে যে আলোচনা তা আজ সফল হয়েছে । রাজ্য সরকারের যে সদিচ্ছা দেখে আমরা কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের পক্ষ থেকে রাজ্য সরকারকে ধন্যবাদ জানাই । আমাদের যে দাবিগুলো ছিল তা পূরণ হওয়ার পথেই এবং কার্যকরী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হচ্ছে । এসটি হওয়ার জন্য রাজ্য সরকারের যা প্রসিডিউর তা করা হচ্ছে । ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নামকরণ প্রসঙ্গে রাজেশ মাহাতো জানান, নামকরণ বিষয়ে সরকার ভাবনা চিন্তা করবে এবং পরবর্তী ক্ষেত্রে যেকোনো বড় প্রতিষ্ঠান তৈরি হলে তা কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের প্রস্তাবিত নামকরণ করা হবে । যারা বলেন, আগামীকাল সভা করে এই সাফল্য সকলের কাছে তুলে ধরা হবে ।

জানা যায় , এদিনের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর সঙ্গে বৈঠকে ছিলেন কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের রাজেশ মাহাত (কুড়মি সমাজ ,পশ্চিমবঙ্গ ), হংসেশ্বর মাহাত (রাজ্য সহ সভাপতি , পূর্বা অঞ্চল আদিবাসী কুড়মি সমাজ ) , অশোক মাহাত (জনজাতি কুড়মি সমাজ ), মনরঞ্জন মাহাত (কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের , মুখপাত্র ), সুদীপ কুমার রায় মাহাত ( কুড়মি সেনা ) । এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলার ডিএম, এসপি এবং তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক ছত্রধর মাহাতো ।

রাজ্য সরকারের আশ্বাসের পর শনিবার আমরণ অনশন প্রত্যাহার করে কুড়মী সমন্বয় মঞ্চ । জেলা প্রশাসন এবং জেলা পুলিশের সাহায্যে রাজ্য সরকারের সঙ্গে তাঁদের ২৬ দফা দাবি সম্পর্কে বিস্তর আলোচনা হয় । রাজ্য সরকার আশ্বাস দিয়েছিলেন ১৫ ই ডিসেম্বর রাজ্যের প্রতিনিধি ঝাড়গ্রামে এসে কুড়মী সমন্বয় মঞ্চের নেতাদের সাথে তাঁদের দাবি সম্পর্কে আলোচনায় বসবে । এর পরেই আমরণ অনশন প্রত্যাহার করে কুড়মী সমন্বয় মঞ্চ । যদিও কুড়মী সমন্বয় মঞ্চের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল ১৫ ই ডিসেম্বর তাঁদের দাবি সম্পর্কে যদি কোন প্রকার সদুত্তর না পাই তাহলে ১৬ই ডিসেম্বর তাঁরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে বৃহত্তম আন্দোলনে নামতে পারে । কিন্তু এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পর সমাধান সূত্র বের হয় কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের ।

মেদনীপুরে মুখ্যমন্ত্রীর সভার দিন ঝাড়গ্রাম জেলা শাসকের অফিসের বাইরে এসটি সহ মোট ২৬ দফা দাবিকে সামনে রেখে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে কুড়মী সমন্বয় মঞ্চ । ডেপুটেশন জমা দেয়া হয় ঝাড়গ্রামের জেলা শাসকের কাছে কিন্তু অবস্থান বিক্ষোভ চার দিনে পা দিলোও সরকারের কাছ থেকে কোন সদুত্তর না পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেল চারটে থেকে ঝাড়গ্রাম কুড়মী সমন্বয় মঞ্চের পক্ষ থেকে ঝাড়গ্রাম জেলা শাসকের দপ্তরের নিকটে আমরণ অনশনে বসে । গত ৭ই ডিসেম্বর ঝাড়গ্রামে কুড়মী সমন্বয়ক মঞ্চের পক্ষ থেকে জেলাশাসকের দপ্তরে নিকট ২৬ দফা দাবি নিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করেন, তাদের দাবির মধ্যে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য দাবি হলো কুড়মী জাতিকে এসটি তালিকাভুক্ত করা, কুরমালী ভাষার অষ্টম তফসিলি অন্তর্ভুক্তি করণ, এবং ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় টি রঘুনাথ মাহাত নামে নামাঙ্কিত করণ । এই অবস্থান বিক্ষোভ তিন দিন পার হয়ে চার দিন পা দিলেও রাজ্য সরকারের কাছে থেকে কোনো সদর্থক উত্তর তাদের কাছে না আশায় তারা গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল । অনশন মঞ্চে মেডিকেল টিম বসানোর দাবিতে ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় পথ অবরোধ করেছিল কুড়মী সমন্বয় মঞ্চের নেতৃত্ব এবং সর্মথকরা । পুলিশের পক্ষ থেকে মেডিকেল টিম বসানোর আশ্বাস দেয়ার পর তাঁরা পদ অবরোধ তুলে নিয়েছিল ।

এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঝাড়গ্রাম শহরের অফিসার্স ক্লাবের মাঠে একটি জনসভায় যোগ দেন তিনি । জনসভায় অতীতের কথা তুলে বিস্তর বক্তব্য রাখেন। তিনি সভা মঞ্চ থেকে বিজেপি কে আক্রমণ করে বলেন ,বিজেপি আদিবাসীদের কাছ থেকে জল জঙ্গল জমিনের অধিকার কেড়ে নিচ্ছে । সভাশেষে সাংবাদিক বৈঠক করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় শুভেন্দু সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি তার কোনো সদুত্তর দেননি । কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের সাথে বৈঠকের কোথাও তিনি জানেন না বলে জানান তখন । তারপরেই প্রকৃতি পর্যটন কেন্দ্রে কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতাদের সাথে বৈঠক করেন তিনি ।

একই রকমের খবর

Back to top button
Use GNE Bangla App Install Now
Subscribe YouTube Channel